চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জ হাটে পাইকারি বাজারে সবজির দাম কম : খুচরা বাজারে দাম দ্বিগুণের বেশি

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার পাইকারী হাট বাজারে রমজান মাসে সবজিসহ বিভিন্ন সামগ্রীর মূল্য কম হলেও পাশ্ববর্তী বাজারগুলোতে বিক্রি হচ্ছে দ্বিগুন বা তার চেয়ে বেশি দামে। ফলে ক্রেতারা বঞ্চিত হচ্ছে অল্পমূল্যে সবজি খেতে। ফলে বাজার মনিটরিং জোরদার করার দাবি করেছে ক্রেতারা।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে সদর উপজেলার সরোজগঞ্জ বাজারের পাইকারী হাটে সবজির মূল্য একেবারেই কম ছিলো। বেগুনের দাম ছিলো কেজি প্রতি ১০ টাকা, শশা ১০, ধনে পাতা ৮০, পটল ৫, কচু ২৫, গেমি ৫, পেঁয়াজ ৩৪, রসুন ১০০, করলা ৭, কাঁচামরিচ ৪৫ টাকা এবং লেবুর শ ছিলো ১২০ টাকা। ১ সপ্তাহ আগে বেগুনের কেজি ছিলো ২৫ টাকা, শশা ২০, ধনে পাতা ১০০, পটল ১৩, কচু ২৫, গেমি ৪, পেঁয়াজ ৩৫, রসুন ১০০, করলা ১৭, কাঁচা মরিচ ৪৫ টাকা এবং লেবুর শ ছিলো ২০০ টাকা। ফলে কৃষকরা কম দামে হাটে সবজি বিক্রি করলেও সাধারণ ভোক্তারা এর সুফল পাচ্ছে না। যখনই পাইকারী হাট থেকে পাশ্ববর্তী খুচরা বাজারে সবজি চলে যাচ্ছে তখনই সবজির দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে যাচ্ছে।

সরোজগঞ্জ মেসার্স সিকদার বাণিজ্যালয়ের মালিক ফজলুর রহমান সিকদার জানান, কাঁচামালের দাম আমদানীর ওপর নির্ভর করে। বেশি আমদানী হলে সবজি ও অন্যান্য দ্রব্যের দাম কমে যায়। আবার কম আমদানী হলে দাম বেশি হয়।

চুয়াডাঙ্গা জেলা মার্কেটিং অফিসার সহিদুল ইসলাম জানান, বাজার মনিটরিংয়ের কাজ যথাযথভাবে চলছে। খেজুর ও চিনি মূল্য স্বাভাবিক রয়েছে। সবজির মূল্য আমদানীর ওপর কম-বেশি নির্ভর করে।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *