চুয়াডাঙ্গার সন্তান বিশ্বের খ্যাতনামা পদার্থবিজ্ঞানী ড. ফজলে বারী মালিকের ইন্তেকাল : আজ দাফন

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার সন্তান বিশ্বের খ্যাতনামা পরমাণু বিজ্ঞানী ড. ফজলে বারী মালিক ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে….. রাজেউন)। গতপরশু তিনি আমেরিকায় যাওয়ার পথে ইস্তাম্বুল বিমানবন্দরে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি মরহুমা প্রফেসর বশিরা মান্নানের একমাত্র ভাই।

ড. ফজেলা বারী মালিকের মৃতদেহ আজ সোমবার সকালে ঢাকা ধানমন্ডির রোড-নং ৮ এ বাড়ি-নং ৬২ তে নেয়া হবে। বাদ জোহর ধানমন্ডি ঈদগা জামে মসজিদে জানাজা শেষে ঢাকাতেই দাফনকাজ সম্পন্ন করা হবে। পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে অ্যাড. আব্দুর রাজ্জাক চৌধুরীও পৌর কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম খোকন এ তথ্য জানিয়েছেন।

সংশ্লিষ্টসূত্র বলেছে, চুয়াডাঙ্গার মরহুম আব্দুল বারীর ছেলে ড. ফজলে বারী মালিক দীর্ঘদিন ধরেই আমেরিকায় বসবাস করে আসছিলেন। তার রয়েছে একমাত্র কন্যা। স্ত্রী জাপানিজ। ড. ফজলে বারী সম্প্রতি দেশে ফেরেন। তিনি তার স্থাবর অস্থাবর সম্পদ সম্পত্তি স্ত্রী কন্যার নামে রেজিস্ট্রি করে দেন। এরপর তিনি তার কর্মস্থল আমেরিকায় ফিরছিলেন। তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। এ খবর তার নিকটজনদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে শোকের ছায়া নেমে আসে। মৃতদেহ দেশে নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়। সংশ্লিষ্ঠরা বলেছেন, আজ সোমবার সকালেই মৃতদেহ তার ধানমন্ডির বাসায় নেয়া হবে। বাদ জোহর দাফনকাজ সম্পন্ন করা হবে।

উল্লেখ্য, চুয়াডাঙ্গার এই মালিক পরিবারের জমি ও অর্থ দানের মধ্যদিয়ে বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেমন গড়ে উঠেছে, তেমনই চুয়াডাঙ্গার ডায়েবেটিস চক্ষু হাসপাতালটিও তাদের দানকৃত জমির ওপর স্থাপিত। চুয়াডাঙ্গা কোর্টমোড়ের বিশাল মোবারক মালিক মঞ্জিলটি তাদেরই বাড়ি।

অপারদিকে এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের প্রথম পরিকল্পনা কমিশনের উচ্চ শিক্ষা ও বিজ্ঞান বিষয়ক উপদেষ্টা, রাজশাহী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের বিশেষ শুভানুধ্যায়ী, অত্র বিভাগ তথা বাংলাদেশে পদার্থবিজ্ঞান চর্চার মহান পৃষ্ঠপোষক, সাউদার্ন ইলিনয়েস বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমিরেটাস রিসার্চ প্রফেসর, উন্নয়নশীল দেশ সমূহে পদার্থবিজ্ঞানের উন্নয়নের জন্য আমেরিকান ফিজিকাল সোসাইটি (এ.পি.এস.) এর হুইটলী পুরস্কার প্রাপ্ত বাংলাদেশি বংশোদূত বিশিষ্ট মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী প্রফেসর ফজলে বারী মালিক আকস্মিকভাবে গত ৪ জুলাই ঢাকা থেকে আমেরিকার যাত্রা পথে তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলে ইন্তেকাল করেছেন। তার মরদেহ ৭ জুলাই ২০১৪ ইং তারিখে ঢাকায় এসে পৌঁছাবে। মরদেহ সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত রোড-নং ৮ এ বাসা নং-৬২, ধানমন্ডি আ/এ সকলের শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের জন্য রাখা হবে। তার জানাজা বাদ জোহর রোড নং-৭ ধানমন্ডি আ/এ জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *