চুয়াডাঙ্গার মোমিনপুরে চুরি বিষয়ে সালিসসভায় তুমুল উত্তেজনা : চোর অপবাদে সালিসভায় মারপিট : পিতা-পুত্র হাসপাতালে

মোমিনপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের মোমিনপুরে এক ব্যক্তির বাড়িতে গত দু দিন আগে নগদ টাকাসহ সোনার গয়না চুরি হয়। এক ব্যক্তির ওপর চোর সন্দেহ হলে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সালিসসভার আয়োজন করা হয়। সভায় চোর সন্দেহ ব্যক্তি চুরির সাথে জড়িত নয় বললে শুরু হয় তুমুল উত্তেজনা। এক পর্যায়ে লাঠিসোঁটা দিয়ে সালিসসভায় তাকে মারধর করে রক্তাক্ত জখম করা হয়। তাকে ঠেকাতে গেলে তার মা ও পিতাকেও মারধর করা হয়েছে। আহত পিতা-পুত্রকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের মোমিনপুর গ্রামের নওদাপাড়ার আয়েত আলীর বাড়িতে দু দিন আগে নগদ টাকাসহ এক জোড়া সোনার দুল চুরি হয়। আয়েত আলীর লোকজন তার প্রতিবেশী আসিরুদ্দিন ওরফে আসুর ছেলে তারিককে (২০) সন্দেহ করে। তারিককে চোর সন্দেহ করলে তারিকের লোকজন ও আয়েত আলী লোকজনের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে গ্রামের নওদাপাড়ার সালামের চাতালে সালিসসভা বসে। তারিক সভায় বলে, ‘আমি আয়েত আলীর বাড়ির চুরির সাথে জড়িত নয়। আমাকে অন্যায়ভাবে অপবাদ দেয়া হচ্ছে।’ তারিকের এ কথারপর পরই আয়েত আলীর লোকজন তাকে লাঠিসোঁটা দিয়ে মেরে রক্তাক্ত জখম করে। তারিকের পিতা আশাদুল ও মা ভানু খাতুন ঠেকাতে গেলে এদের কেউ মারধর করা হয়। পরে তিনজনকেই চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। তারিকুল এ তার পিতাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সালিসসভায় কয়েকজন বলেন, তারিক ইতঃপূর্বেও কয়েকটি চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে বলে শোনা গেছে। সে কারণে ওই চুরির সাথেও তারিক জড়িত। পক্ষান্তরে অনেকেই বলেছেন, শুধু মাত্র সন্দেহের বসে কাওকে দোষারোপ করে সালিসে ডেকে মারধর করা অন্যায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *