চুয়াডাঙ্গার পিরোজখালীর প্রবাসী রাজাকে চাঁদার দাবিতে অপহরণের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা পিরোজখালীর প্রবাসী রাজাকে অপহরণ করা হয়েছে। প্রবাস থেকে মাস খানেক আগে বাড়ি ফিরে চাঁদাবাজদের টার্গেটে পড়েন রাজা। চাঁদার টাকা না দেয়ায় বৃহস্পতিবার রাতে ৫ জন মুখোশধারী অপহরক তাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। রাজাকে কোথায় নিয়ে কিভাবে রাখা হয়েছে পরিবারের লোক তা জানে না। অবশেষে গত রাতে পাঁচজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন অপহৃত রাজার মা মতিরন নেছা।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার পদ্মবিলা ইউনিয়নের পিরোজখালী গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে রাজা (২৬) বছর দুয়েক আগে দুবাই যান। সেখান থেকে মাসখানেক আগে তিনি সাময়িকভাবে বাড়ি ফেরেন। সেই থেকেই তার কাছে ৪ লাখ টাকা চাঁদা করে আসছিলো একটি চক্র। এক পর্যায়ে রাজা ৫০ হাজার টাকা দিতেও রাজি হন। কিন্তু চাঁদাবাজরা শেষমেশ আড়াই লাখ টাকার দাবিতে অনড় থাকে। চাঁদার আড়াই লাখ টাকা না দেয়ায় গত বৃহস্পতিবার রাতে রাজাকে অপহরণ করা হয়। রাজার মা মতিরন নেছা অভিযোগ করে বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাতে পাশের রবিউলের বাড়িতে শুয়ে ছিলো রাজা। এ সময় ৫ জন মুখোশধারী অপহরক তাকে বিছানা থেকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। মতিরন নেছা মাথাভাঙ্গায় অভিযোগ করে আরো বলেন, পিরোজখালী গ্রামের নইমুদ্দিনের ছেলে জহির উদ্দিন ও নবি ছদ্দিনের ছেলে আজিত অনেক দিন ধরে রাজার কাছে চাঁদা চেয়ে আসছিলো। তাদের সহযোগিতায় পাঁচজন অপহরক তাকে অপহরণ করেছে বলে আমাদের ধারণা। মতিরন নেছা গতরাতে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় উপস্থিত হয়ে জহির ও আজিতসহ অজ্ঞাত আরো তিনজনের নামে অপহরণ মামলা করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *