চুয়াডাঙ্গার পথে প্রাতঃভ্রমণকালে ডিবি পরিচয়ে নারীর গলার চেন ছিনতাই

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার পথে প্রাতঃভ্রমণ? সাবধান। ডিবি সেজে ছিনতাই করতে পারে সড়কে দাপানো ছিনতাইকারী। কোনো স্থানে বসে প্রেমিক-প্রেমিকা কিংবা নতুন দম্পতি কথা বলতে চাও? সুযোগ নেই। আপত্তিকর অভিযোগ তুলে হাতিয়ে নেবে নামধারী কিছু উশৃঙ্খল। অটোযোগে যুবক-যুবতী ঘনিষ্ঠ হয়ে বসে আত্মীয়বাড়ি? তাতেও ওরা বাধ সেজে দাবি করছে টাকা। তা না দিলে ঘরে আটকে হয় পুলিশে দেয়ার ভয়, না হয় বড় ধরনের ক্ষতির হুমকি। গতকাল চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের পৃথক দুটি স্থানে পৃথক দুটি ঘটনার প্রেক্ষিতে অনেকেই এসব তথ্য জানিয়ে বলেছে, দিন দিন পরিস্থিতি ভয়ানক হয়ে উঠছে।  জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের একটি শাখায় উচ্চমান সহকারী হিসেবে কাজ করেন এক নারী। তিনি গতকাল প্রভাতে বাড়ি থেকে বের হয়ে প্রতিদিনের মতো প্রাতঃভ্রমণ শুরু করেন। আত্মবিশ্বাসের পাশের রাস্তায় হাঁটার সময় দু ব্যক্তি হাজির হয়ে নিজেদের ডিবি পুলিশ বলে পরিচয় দিয়ে কথা বলতে শুরু করে। সুযোগ বুঝে গলায় থাকা সোনার চেন ছিনিয়ে নিয়ে চম্পট দেয়। এ ধরনের ঘটনা চুয়াডাঙ্গায় এটাই প্রথম নয়, গত শীতের সকালে কুয়াশার মধ্যে কেদারগঞ্জসহ কয়েকটি স্থানে ডিবি সেজে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। বেশ কয়েক মাসের ব্যবধানে অভিন্ন ঘটনার পর প্রাতঃভ্রমণকারীদের অনেকে গতকালের ঘটনা শোনার পর বলেছেন, শহরের রাস্তায় একটু হাঁটারোও যেন নিরাপত্তা নেই। অপরদিকে গতকাল বিকেলে চুয়াডাঙ্গার নতুন স্টেডিয়ামের অদূরে অটো থেকে নামিয়ে যুবক-যুবতীদের নাজেহাল করেছে নামধারী কয়েক যুবক। চুয়াডাঙ্গা শহর থেকে জাফরপুরের দিকে রওনা হওয়া অটোতে যুুবক-যুবতী দেখে পিছু নেয় কয়েক উশৃঙ্খল যুবক। ওরা স্টেডিয়ামের অদূরে আনন্দ নিকেতন স্কুলের সামনে অটো থামিয়ে যুবক-যুবতী নামিয়ে অপত্তিকর পরিচয় দেয়। যুবক-যুবতী নিজেদের প্রথমে স্বামী-স্ত্রী বলে পরিচয় দিলেও যুবকদের চাপের মুখে স্বীকার করে তাদের এখনও বিয়ে হয়নি তবে হবে। বাড়ি ঝিনাইদহ মহেশপুরের সামান্তায়। আত্মীয়বাড়িতে বেড়াতে এসেছে। যুবক-যুবতীদের ধরে টাকা হাতিয়ে নেয়ার পর ছেড়ে দেয়ার ঘটনা ঘটে বলে জানা গেলেও এ ধরনের ঘটনা কিছু চিহ্নিত যুবক একের পর এক ঘটিয়ে চলেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। অভিযোগকারীরা বলেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের কোথাও বসে কথা বলারও যেন সুযোগ নেই। আপত্তিকর অভিযোগ তুলে টাকা হাতানোর জন্যই ওরা অপেক্ষার প্রহর গোনে। কোনো নতুন দম্পতি হলেও যদি বোঝে ওরা বহিরাগত তাহলে ওরা কালবিলম্ব না করেই টাকা হাতানোর চেষ্টায় মেতে ওঠে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *