চুয়াডাঙ্গার দুটি ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদপূর্ণ হওয়ার আড়াইবছর আগেই ভোট! ভুল সংশোধনের আবেদন

স্টাফ রিপোর্টার: প্রথম দফায় ঘোষিত তফসিলভুক্ত চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার আইলহাস ও নাগদহ ইউনিয়নকে ভুলক্রমে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। এ তথ্য জানিয়ে ভুল সংশোধনের জন্য ইতোমধ্যেই আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিসার নির্বাচন কমিশনে আবেদন করেছেন। অপরদিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে দেশ জুড়েই গ্রাম পর্যায়ে উৎসবের আমেজ ফুটে উঠেছে। রাজনৈতিক দলগুলোর কার্যালয়েও দলীয় প্রার্থিতা পেতে আগ্রহীদের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বিএনপি ও আওয়ামীলীগ ইতোমধ্যেই তৃণমূলে পত্র দিয়ে প্রার্থীদের নামের তালিকা পাঠানোর কথা জানাতে শুরু করেছে।
জানা গেছে, মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার দেড় দুবছর আগেই চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার নাগদহ ও আইলহাস ইউনিয়নের নির্বাচন প্রথম দফায় ঘোষিত তফসিলভুক্ত করায় সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরাও হতবাক হয়েছেন। চুয়াডাঙ্গার এ দুটি ইউনিয়ন ছাড়া আর কোনো ইউনিয়নকে অবশ্য প্রথম দফায় ঘোষিত তফসিলভুক্ত করা হয়নি। মেহেরপুরের কোনো ইউনিয়নও প্রথম দফায় ঘোষিত তফসিলভুক্ত নেই। তবে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরের ৫টি ইউনিয়ন তফসিলভুক্ত করা হয়েছে। এগুলো হলো- বলুহর, দোড়া, এলাঙ্গী, কুশনা ও সাব্দালপুর। এদিকে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদকেও প্রথম দফা ঘোষিত তফসিলভুক্ত করা হয়েছে। এগুলো হলো- আমবাড়িয়া, আমলা, বহুলবাড়িয়া, বারুইপাড়া, ছাতিয়ান, কুর্শা, মালিহাদ, ফুলবাড়ি, পোড়াদাহ, সদরপুর ও তালবাড়িয়া ইউনিয়ন।
তফসিল অনুযায়ী, প্রথম ধাপের ৭৫২টি ইউপিতে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ২২ ফেব্রুয়ারি। মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময় ২ মার্চ এবং প্রতীক বরাদ্দ হবে ৩ মার্চ। ভোটগ্রহণ ২২ মার্চ। দ্বিতীয় ধাপে ৭১০টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হবে ৩১ মার্চ। এসব ইউপিতে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ২ মার্চ। তৃতীয় ধাপে ৭১১টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হবে ২৩ এপ্রিল, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ২৭ মার্চ। চতুর্থ ধাপে ৭ মে ভোটগ্রহণ করা হবে ৭২৮টি ইউপিতে। এসব ইউপিতে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ৭ এপ্রিল। পঞ্চম ধাপে ৭১৪টি ইউপিতে ভোট গ্রহণ করা হবে ২৮ মে, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ২ মে। সর্বশেষ ষষ্ঠ ধাপে ৬৬০টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হবে ৪ জুন, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ৯ মে।
প্রথমদফায় ঘোষিত তফসিলভুক্ত চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার আইলহাস ও নাগদহ ইউনিয়ন পরিষদের সর্বশেষ নির্বাচন ২০১৩ সালের ২৭ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয়। অথচ ঘোষিত তফসিলে দেখানো হয়েছে ২০১১ সালের ২৭ এপ্রিল। মেয়াদপূর্ণ হতে বাকি এখনও আড়াই বছরের অধিক।
এদিকে নিজ নিজ দলের মাঠ পর্যায়ের নেতাদের কাছে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থীর নাম পাঠাতে বলেছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে দুই দলই তৃণমূলকে অগ্রাধিকার দিয়েছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাই করবেন জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়নের নেতারা। আর বিএনপির প্রার্থীর নাম পাঠাবেন উপজেলা ও ইউনিয়নের নেতারা। গতকাল শুক্রবার আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকদের সমন্বয়ে গঠিত নির্বাচনী বোর্ডকে প্রার্থীর নাম চূড়ান্ত করে ১৫ ফেব্রুয়ারি সোমবারের মধ্যে দলীয় সভানেত্রীর ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে পাঠাতে হবে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মনোনীত প্রার্থীর নাম (ভোটার নম্বর ১২ ডিজিট) এবং নির্বাচনী আইন, নীতিমালা ও বিধিমালা অনুযায়ী সব তথ্য প্রার্থীর নামের সাথে পাঠাতে হবে। প্রার্থীর ভোটার আইডির ফটোকপি অবশ্যই পাঠাতে হবে, যা বাধ্যতামূলক। স্থানীয় সরকার নির্বাচনের মনোনয়নের ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) মনোনয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ও প্রতীক বরাদ্দ করবে।
এদিকে বিএনপির যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য চেয়ারম্যান পদে প্রতি ইউপি থেকে একজন করে প্রার্থীর নাম সুপারিশ আকারে কেন্দ্রে পাঠাতে হবে। সংশ্লিষ্ট উপজেলার বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক এই পাঁচজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম অনুমোদন করে কেন্দ্রে পাঠাবেন। তবে নাম পাঠানোর জন্য কোনো দিনক্ষণ বেঁধে দেয়নি বিএনপি। প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে আগামী ২২ মার্চ সারাদেশে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন শুরু হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে ৪ জুন পর্যন্ত মোট ছয় ধাপে ৪ হাজার ২৭৫টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হবে। ২২ মার্চ প্রথম ধাপে ভোটগ্রহণ হবে ৭৫২টি ইউপিতে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *