চুয়াডাঙ্গার ছোটশলুয়ায় বজ্রপাতে যুবতী আহত

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের ছোটশলুয়া মাঝেরপাড়ায় বজ্রপাতে লাকি খাতুন (১৮) আহত হয়েছেন। গতকাল আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে বাড়ির রান্না ঘরের সামনে বসে মাছ কোটার সময় বজ্রপাতে সে আহত হয়। পাশের নারকেল গাছটি ঝলসে যায়। লাকি খাতুনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে।
জানা গেছে, আব্বাস আলীর মেয়ে লাকি খাতুন নিজের বাড়ির রান্না ঘরের পাশেই বসে মাছ কুটছিলেন। মেঘ গুড়গুড় শুরু হয়। হালকা বৃষ্টির মাঝে বজ্রপাতের আলোয় ঝলসে ওঠে লাকি খাতুনদের বাড়ির আশ পাশ। বিকট শব্দে লাকি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাকে উদ্ধার করে কাসার থালা বাজাতে বাজাতে নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বজ্রপাতের বৈদ্যুতিক শক্তিতে নয়, শব্দে আহত হয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। ফলে লাকি খাতুন সম্পন্ন ঝুকিমুক্ত।
সারাদেশেই বজ্রপাতের সংখ্যা আশঙ্কাজনকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে। পরিবেশের ভাসরম্য রক্ষা করতে না পারার কারণে বৈশ্বিক উষ্ণতায় বজ্রপাত বৃদ্ধির কারণ বলে গবেষকদের ধারণা। বড় বড় গাছ না থাকার কারণে বজ্রপাতে প্রাণহানীর সংখ্যা বেড়েছে। ফলে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকসহ পরিবেশ প্রেমীরা ঘুরে ফিরেই বেশি বেশি তালগাছ লাগনোর আহ্বান জানিয়ে আসছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.