চুয়াডাঙ্গার কুন্দিপুরের আলমগীর হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে দোস্তের জিয়ারুল গ্রেফতার

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদরের কুন্দিপুর গ্রামে পূর্বশত্রুতার জের ধরে আলমগীর নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। এ হত্যাকাণ্ডে সাথে জড়িত সন্দেহে হিজলগাড়ি পুলিশ দোস্ত গ্রামের জিয়ারুলকে গ্রেফতার করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

জানা গেছে, গত ২০ ফেরুয়ারি রাত ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের কুন্দিপুর গ্রামের আলমাছের ছেলে আলমগীর হোসেনকে (৩৫) দুর্বৃত্তরা ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় আলমগীরকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে ফেলে রেখে চলে যায়। ঘটনার ৩ দিনের মাথায় রাজশাহী মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ঘটনার দিনই আলমগীরের পিতা বাদী হয়ে দোস্ত গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে মাদকব্যবসায়ী আব্দুল হান্নান, হান্নানের ভাই মান্নান এবং মান্নানের ছেলে শাহীনসহ কয়েকজনকে আসামি করে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মামলা করেন। পুলিশ এ ঘটনায় দোস্ত গ্রামের মান্নানের ছেলে শাহীনকে গ্রেফতারও করে। পূর্বশত্রুতার জের ধরে আমগীরকে তার ভগ্নিপতি ও তার ভাই এবং ভাইয়ের ছেলেসহ আলমগীরকে হত্যা করে বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়। এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার রাত ৮টার দিকে হিজলগাড়ি ক্যাম্প পুলিশের এএসআই মুহিতুর রহমান দোস্ত গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে মাদকবিক্রেতা জিয়ারুল ইসলামকে (৩২) তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেন।

পুলিশ বলেছে, জিয়ারুল আলমগীর হত্যাকাণ্ডে সাথে জড়িত থাকতে পারে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর নানা অভিযোগ রয়েছে। গ্রেফতারকৃত জিয়ারুলকে আজ শনিবার থানায় সোপর্দ করা হতে পারে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *