চুয়াডাঙ্গার উপশম নার্সিং হোমে সদ্য প্রসূত শিশুর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা উপশম নার্সিং হোমে সদ্য প্রসূত এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। জন্ম নেয়ার কিছুক্ষণ পরই সে মারা যায়। গর্ভের পরিপূর্ণ সময়ের আগেই প্রসব করানোর ফলে তার মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবারের লোকজনের অভিযোগ। গত শনিবার সকালে উপশম নার্সিং হোমে মেহেরপুরের শিমুলতলা গ্রামের মমতাজ বেগম কন্যা সিজারিয়ানের মাধ্যমে কন্যাসন্তান প্রসব করেন।

গাংনী উপজেলার শিমুলতলা গ্রামের সগির উদ্দিনের স্ত্রী মমতাজ বেগমের নিকটজনরা বলেন, ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন মমতাজ। গত শনিবার তাকে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের উপশম নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়। ক্লিনিকের ডা. জিন্নাতুল আরা তাকে দেখে স্বাভাবিকভাবেই সন্তান প্রসব হবে বলে জানান। কিন্তু কিছুক্ষণ চেষ্টার পর তাকে পুনরায় সিজারিয়ানের পরামর্শ দেন। বেলা ১১টার দিকে সিজারিয়ানের মাধ্যমে মমতাজ কন্যা সন্তান প্রসব করেন। কিছুক্ষণ পরই সদ্য প্রসূত সন্তান মারা যায়। মমতাজের নিকটজনরা বলেন, সন্তান প্রসবের সময় হওয়ার কয়েক মাস আগেই সিজার করার কারণে হয়তো মমতাজের সন্তান মারা গেছেন। ডা. জিন্নাতুল আরা বলেন, মমতাজের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। এ কারণেই সিজার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.