চুয়াডাঙ্গার উজলপুর-কোটালী সড়কে ছিনতাইকারীদের তাণ্ডব

 

জনতার হাতে ছিনতাইচক্রের ২ সদস্য পাকড়াও

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার উজলপুর-কোটালী সড়কে একের এক ঘটছে ছিনতাইয়ের ঘটনা। কোনোভাবেই ছিনতাইকারীদের দমন করতে পারেনি পুলিশ। আবারো ছিনতাইকারীদের তাণ্ডব চলাকালে প্রতিরোধ গড়ে তুললো জনতা। ধাওয়া করে ছিনতাইচক্রের দু সদস্যকে ধরেছে গ্রামবাসী। পালিয়ে রক্ষা পেয়েছে ওই চক্রের হোতা আটকবরের রাজুসহ ৩ জন। আটককৃতদের সোপর্দ করা হয়েছে পুলিশে।

জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের উজলপুর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে মন্টু মিয়া নওদাগা গ্রামে অসুস্থ আত্মীয়কে দেখে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় তিনি উজলপুর-কোটালী সড়কের নীলমারি বাঁকে পৌঁছুলে আলমসাধুর ওপরে থাকা ৫/৬ জন ছিনতাইকারী মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে। মোটরসাইকের চালক মন্টুকে মারপিট করে মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে বলে সে জানায়। একপর্যায় তার চিৎকারে গ্রামের লোকজন ছুটে এলে আলমসাধুতে করে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় গ্রামবাসী ছিনতাইকারীচক্রের সদস্য চুয়াডাঙ্গা সদরের তিতুদহ ইউনিয়নের ছোটশলুয়া গ্রামের করিম মণ্ডলের ছেলে মিনারুর (৩৫) ও নবীছদ্দিনের ছেলে জামাল হোসেনকে (৩৬) ধরে ফেলে। সাথে থাকা দামুড়হুদা আট কবর গ্রামের বোমা রাজু, যশোরের আকতারুল ও ছোটশলুয়া গ্রামের সামসুলের ছেলে আনারুল পালিয়ে যায়। পরে গ্রামবাসী আটককৃত মিনারুল ও জামালকে বেগমপুর ক্যাম্পপুলিশের হাতে তুলে দেয়। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা বেশ কিছু তথ্য দিয়েছে। এ তথ্যের ওপর ভিত্তি করে পুলিশ ওই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান শুরু করেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *