চিত্রা আন্তঃনগর ট্রেনে আসন সংখ্যা হ্রাস করায় চার জেলার যাত্রীদের মাঝে ক্ষোভ

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় ঈদকে সামনে রেখে ঢাকাগামী চিত্রা আন্তঃনগর ট্রেনে শোভন শ্রেণিতে নির্ধারিত ৪০টি সিট থেকে ১৫টি সিট কমিয়ে ২৫টি করায় বিপাকে পড়েছে যাত্রীরা। আসন সংখ্যা কমে যাওয়ায় চারটি জেলার হাজার হাজার যাত্রীর মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। রেল কর্তৃপক্ষের কাছে যাত্রীদের দাবি, অবিলম্বে নির্ধারিত ৪০টি সিট বাড়িয়ে ১০০টি করা হোক।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সড়ক পথে অসুবিধার কথা বিবেচনা করে ৭ বছর আগে খুলনা থেকে ঢাকাগামী চিত্রা আন্তঃনগর ট্রেনের চলাচল শুরু হয়। ট্রেনটি বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে। কিন্ত, গত ২৯ জুন হঠাত করে কোনো কারণ ছাড়াই রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা শোভন শ্রেণিতে আসন সংখ্যা ৪০টি থেকে কমিয়ে ২৫টি করেছেন। এতে করে পার্শ্ববর্তী মেহেরপুর, ঝিনাইদহ, মাগুরা ও চুয়াডাঙ্গা জেলার ৬০ লক্ষাধিক মানুষের স্বাভাবিক চলাচলকে বিঘ্নিতকরে তুলেছে। তবে, এসি সিট ৫টি ও প্রথম শ্রেণির ২টি সিট অপরিবর্তিত রয়েছে।

এদিকে, খুলনা থেকে ঢাকাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনে শোভন শ্রেণিতে ৪০টি আসন, এসি তিনটি, প্রথম শ্রেণি দুটি বাথ ও তিনটি চেয়ার আসন অপরিবর্তিত রয়েছে।চুয়াডাঙ্গা রেলস্টেশন মাস্টার আব্দুল খালেক জানান, মেহেরপুর, ঝিনাইদহ, মাগুরা ও চুয়াডাঙ্গা জেলার একমাত্র বড় স্টেশন হওয়ায় চিত্রা আন্তঃনগর ট্রেনে যাত্রীরা তুলনায় আসন সংখ্যা অতি নগন্য। আসন সংখ্যা অবশ্যই বৃদ্ধির প্রয়োজন।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.