চাষের জন্য মাঠে ট্রাক্টর নিয়ে হামলার শিকার চালক ॥ হামলাকারীদের একজনকে গ্রেফতার করায় পুনঃহামলায় আহত আরও দুজন

স্টাফ রিপোর্টার: চাষের জন্য মাঠে ট্রাক্টর নেয়ার সময় ক্ষেত নষ্ট করার অভিযোগ তুলে ট্রাক্টর চালককে মেরে গুরুতর আহত করেছে চুয়াডাঙ্গা ঠাকুরপুর পীরগঞ্জের আলী হাসেনের ছেলে মুক্তাসহ তাদের লোকজন। গতকাল সকাল ৯টার দিকে ট্রাক্টর চালক ঠা-ু রহমানকে মারধর করা হয়। তিনি থানায় নালিশ করলে পুলিশ মুক্তাকে গ্রেফতার করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ট্রাক্টর ভাড়ায় নেয়া জমির মালিক নূরুল ইসলাম ও তার ছেলে সুমনকে মেরে আহত করেছে। সুমনের পায়ে ধারালো অস্ত্রের কোপে রক্তাক্ত জখম করা হয়। সুমনও আলী হোসেনসহ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ পেশ করেছে।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের ঠাকুরপুর পীরগঞ্জের নূরুল ইসলামের জমি চষার জন্য ট্রাক্টর ভাড়া করেন। শঙ্করচন্দ্র আনসার ক্যাম্পপাড়ার আকবর ম-লের ছেলে ট্রাক্টর চালক ঠা-ু রহমান ট্রাক্টর নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকালে নূরুল ইসলামের জমিতে যান। একই গ্রামের আলী হোসেন ও তার ছেলে মুক্তাসহ তাদের লোকজন ট্রাক্টরে ধানক্ষেত নষ্ট হয়েছে বলে দাবি তোলেন। ট্রাক্টর চালক ক্ষতিপূরণের জন্য তাকে ভাড়ায় নেয়া জমির মালিকের কথা বলতেই আলী হোসেনের ছেলে মুক্তাসহ তাদের লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে মারপিট শুরু করে। বেদম প্রহারে আহত ট্রাক্টর চালক সদর থানায় নালিশ করতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে মুক্তাকে গ্রেফাতর করে থানায় নেয়। এর জের ধরে বিকেলে নূরুল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালিয়ে তার ছেলে সুমনের পায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। সুমন বলেছে, আমার পিতাকেও মারপিট করেছে হামলাকারীরা। এ বিষয়েও পৃথক অভিযোগ করা হয়েছে সদর থানায়। চিকিৎসা নিয়ে সুমন বাড়ি ফিরেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.