চাপিয়ে দেয়া সিদ্ধান্ত শিশুদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশের অন্তরায়

?

চুয়াডাঙ্গার নেহালপুরে রঙিন স্কুল উদ্বোধনকালে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ

নজরুল ইসলাম: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে এলজিএসপি-৩ পিবিজি’র অর্থায়নে উপকরণ বিতরণ, রঙিন স্কুল উদ্বোধন, মিড ডে মিল প্রদান এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে নেহালপুর স্কুলমাঠে এক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন জোয়ার্দ্দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ। প্রধান অতিথি বলেন, শিশুদের তাদের নিজেদের মতো করে বেড়ে ওঠার সুযোগ করে দিতে হবে। তবেই তাদের মধ্যে যে সুপ্ত প্রতিভা বিকশিত হবে। কারণ আজকের শিশু আগামী দিনের জাতির ভবিষ্যত। আমাদের সকলকে মনে রাখতে হবে শিক্ষা জাতির মেরুদ-। শিক্ষার উদ্দেশ্য মনুষত্বের বিকাশ। মানুষের মুক্তি, সভ্যতার উৎকর্ষ ও উন্নয়নে শিক্ষা অপরিহার্য। শিক্ষা ব্যক্তিগত উন্নয়নেরও মূল চালিকা শক্তি। এটি উৎপাদনশীলতার ও সৃজনশীলতার হৃৎপিন্ড। উন্নত বিশ্বে তাই শিক্ষকের গুরত্ব অপরিসীম। মানব সম্পদ উন্নয়নে প্রাথমিক শিক্ষাকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হয়। প্রাথমিক শিক্ষার লক্ষ্য হচ্ছে শিশুর দৈহিক, মানসিক, সামাজিক, নৈতিক, মানবিক ও নান্দনিক বিকাশ সাধন এবং তাকে উন্নত জীবনের স্বপ্ন দর্শনে উদ্বুদ্ধ করা। একটি শিশু বা কিশোরকে যিনি শিক্ষা দিবেন শিশু-কিশোর মনোবিজ্ঞান সম্পর্কে তার যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে। কেনো না আজকের এই শিশুরাই বিচরণ করবে সারা বিশ্বে। শিক্ষকদের যেনো দুবেলা দুমুঠো মোটা ভাত কাপড়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই তাদের লক্ষ্য না হয়। তাহলে বাস্তবিক অর্থে শিক্ষা হয়ে উঠবে সৃজনশীলতা প্রকাশ ও বিকাশের অনুপম ক্ষেত্র। সর্বোপরি দেশগঠনে সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। সেই সাথে বাল্যবিয়ে, মাদকমুক্ত রোধ করতে হবে। আলোচনার পূর্বে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি পাওয়ায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন।
আলোচনা শেষে প্রধান অতিথি স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি ও নেহালপুর সরকারি রঙিন স্কুলের শুভ উদ্বোধন, বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে মিড ডে মিল প্রদান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ, কৃষদের মধ্যে উপকরণ বিতরণ, শিশুদের জন্য খেলনা বিতরণ, সবুজ চুয়াডাঙ্গা সমৃদ্ধ বাংলাদেশ শিরোনামে বেগমপুর ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক রোপিত গাছের প্লট ঘুরে দেখেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক সৈয়দ ফারুখ আহম্মদ, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াশীমুল বারী, সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুদুল আলম, শঙ্করচন্দ্র ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান, বেগমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোবারক হোসেন, নেহালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মইনুল ইসলাম ও প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক, শিক্ষক আক্তারুজ্জামান, মোস্তাফিজুর রহমান, শামীম হোসেন, ফরিদা ইয়াসমিন, জাহেদা বেগম, মইনুল ইসলাম, হাজি নুরুল আমিন, আব্দুর রহমান, রাশিদুল ইসলাম, সুজাহান, আ.লীগ নেতা আব্দুল্লাহ, বেগমপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রিজভী আহম্মেদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহীন আহম্মেদ প্রমুখ। সার্বিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ইউপি সচিব আসাবুল হক মাসুদ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *