চতুর্থ ধাপে জীবননগর ও হরিণাকুণ্ডসহ ৯২ উপজেলা নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা

 

৪টি উপজেলায় একক প্রার্থী ঘোষণার লক্ষ্য নিয়ে চুয়াডাঙ্গা বিএনপির সকল অংশের শীর্ষ নেতার বৈঠকে বসতে সম্মত  

স্টাফ রিপোর্টার: চতুর্থ ধাপে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর ও ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুসহ দেশের ৯২ উপজেলা নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ঘোষিত তফশিল অনুযায়ী আগামী ২৩ মার্চ ওইসব উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে তৃতীয় ধাপে ঘোষিত তফশিলে রয়েছে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলা। চুয়াডাঙ্গা সদর ও আলমডাঙ্গা উপজেলা পরবর্তী ধাপভুক্ত রেখেছে নির্বাচন কমিশন।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন দলীয় নির্বাচন না হলেও রাজনৈতিক রং পুরোটাই লেগেছে এবার। আওয়ামী লীগ চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ও ঝিনাইদহের অধিকাংশ উপজেলায় একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে পারলেও বিএনপি রয়েছে টালমাটাল অবস্থায়। মেহেরপুর বিএনপি কিছুটা গুছিয়ে উঠলেও চুয়াডাঙ্গা বিএনপির অবস্থা বেসামাল। চুয়াডাঙ্গার ৪টি উপজেলার সব কটিতেই একাধিক প্রাথী। যে জেলায় বিএনপি বহুভাগে বিভক্ত, সে জেলায় একক প্রার্থী নিশ্চিত করা অনেকটা দুঃসাধ্য, দুঃস্বপ্ন। সে দুঃসাধ্য কাজটি করার বিশেষ উদ্যোগে সম্মত হয়েছেন বহুভাগে বিভক্ত অংশের শীর্ষ নেতারা। জেলা বিএনপির সভাপতি হাজি মোজাম্মেল হক, সাধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় নেতা শামসুজ্জামান দুদু, বিএনপি অপরাংশের সভাপতি অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা মাহমুদ হাসান খান বাবু, বিএনপি একাংশের নেতা ইঞ্জিনিয়ার মকলেছুর রহমান তরফদার টিপু, বিএনপি নেতা লে.কর্নেল (অব.) কামরুজ্জামান ও জেলা বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জেলার ৪টি উপজেলায় একক প্রার্থী ঘোষণার বিষয়টি নিশ্চিত করতে সম্মত হয়ে বৈঠকে বসতে আগ্রহী হয়েছেন। কীভাবে? অবস্থাদৃষ্টে বহুভাগে বিভক্ত নেতাদের প্রায় সকলেরই তাগিদ থেকে।

সূত্র এ তথ্য জানিয়ে বলেছে, আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় হাজি মো. মোজাম্মেল হকের বাসায় অথবা অন্য কোথাও বৈঠক হতে পারে। এ বৈঠক কি লোক দেখানো? নাকি বিজয় নিশ্চিত করতেই প্রয়োজনের তাগিদে? এসব প্রশ্নের জবাব মিলবে বৈঠকের পর। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহল বলেছে, বিএনপি তো একক নয়, তাদের ভাবতে হচ্ছে ১৯ দলীয় জোটের অন্যতম শরীক দল জামায়াতে ইসলামীকে নিয়ে। গত নির্বাচনে এদের চৌকস কৌশলে বিএনপি পরাস্ত হলেও এবার কি রাহুমুক্ত হতে পারবে? প্রশ্ন থাকলেও বিএনপির সাধারণ সমর্থকদের কাছে এর জবাব মিলছে না।

গতকাল নির্বাচন কমিশন টাঙ্গাইল-৮ সংসদীয় আসনে উপনির্বাচনেরও তফশিল ঘোষণা করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কমিশন সচিবালয়ে ৯২ উপজেলা ও টাঙ্গাইল-৮ আসনের তফশিল ঘোষণা করেন সিইসি। ঘোষিত তফশিল অনুযায়ী উপজেলা ও টাঙ্গাইল-৮ আসনের নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন ২৩ ফেব্রুয়ারি, যাচাই-বাছাই ২৬ ফেব্রুয়ারি এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৬ মার্চ। প্রেসব্রিফিঙে এক প্রশ্নের জবাবে কাজী রকিবউদ্দীন বলেন, টাঙ্গাইল উপনির্বাচন এবং উপজেলাতে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। ভোটগ্রহণের আগে-পরে ৫ দিনের জন্য তারা নির্বাচনী মাঠে অবস্থান করবেন। ইসির কর্মকর্তারা জানান, ধাপে ধাপে উপজেলা নির্বাচন শেষ করার লক্ষ্যে ১৯ জানুয়ারি প্রথম ধাপের তফশিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি। দ্বিতীয় ধাপের তফশিল ২৩ জানুয়ারি ঘোষণা করে ভোটগ্রহণের তারিখ ঠিক হয় ২৭ ফেব্রুয়ারি। তৃতীয় ধাপের তফশিল ৬ ফেব্রুয়ারি ঘোষণা করে ভোটগ্রহণ নির্ধারণ হয়েছে ১৫ মার্চ। পঞ্চম ধাপের নির্বাচন হবে আগামী ৩১ মার্চ।

যে ৯২ উপজেলার তফশিল ঘোষণা করা হয়েছে, সেগুলো হচ্ছে- পাবনার ঈশ্বরদী, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ড, নড়াইল সদর, খুলনার তেরখাদা, রূপসা, বটিয়াঘাটা, দাকোপ ও ফুলতলা, পিরোজপুর সদর, ভাণ্ডারিয়া, মঠবাড়িয়া ও জিয়ানগর, টাঙ্গাইলের কালিহাতি, মধুপুর, নাগরপুর ও ভুয়াপুর, হবিগঞ্জ সদর, নবীগঞ্জ, আজমিরিগঞ্জ ও লাখাই, বান্দরবানের নাইখাংছড়ি, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি, রাজশাহীর তানোর, বাগমারা ও পুঠিয়া, পাবনার ফরিদপুর, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর, পটুয়াখালী সদর, দুমকি, বাউফল, গলাচিপা ও মির্জাগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া, নাসিরনগর, কুমিল্লার মেঘনা ও বরুড়া, চাঁদপুরের শাহরাস্তি, ফেনীর সোনাগাজী ও ফুলগাজী, দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ ও ফুলবাড়ী, যশোর সদর ও কেশবপুর, সাতক্ষীরা কলারোয়া, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ, বাগেরহাট মোল্লারহাট ও চিতলমারী, কক্সবাজারের রামু ও কুতুবদিয়া, ভোলার তজুমুদ্দিন, দৌলতখান ও মনপুরা, বরিশালের আগৈলঝাড়া, উজিরপুর ও বানরীপাড়া, গাজীপুরের কালিয়াকৈর, রাঙ্গামাটির জুড়াছড়ি, সিলেট সদর ও কানাইঘাট, চট্টগ্রামের বাঁশখালী, রাউজান, ফটিকছড়ি, রাঙ্গুনিয়া, বোয়ালখালী, সাতকানিয়া ও আনোয়ারা, ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট, সিরাজগঞ্জের চৌহালী, মৌলভীবাজার সদর, শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ, নাটোরের বড়াইগ্রাম, শেরপুর সদর ও নালিতাবাড়ী, মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া, সুনামগঞ্জের শাল্লা, ধর্মপাশা ও জগন্নাথপুর, ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ, চুয়াডাঙ্গার জীবননগর, ঝালকাঠি সদর, কাঁঠালিয়া, নলছিটি ও রাজাপুর, বগুড়ার গাবতলী, নেত্রকোনা মদন, কিশোরগঞ্জ ভৈরব, ইটনা, মিঠামাইন, তাড়াইল ও কটিয়াদি এবং বরগুনার বেতাগী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *