ঘাতক ক্যান্সার কেড়ে নিলো মেধাবী ছাত্র আলমডাঙ্গার মেহেদী হাসানকে

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়া আর হলো না এসএসসি পরীক্ষায় যশোর বোর্ডে ১ম স্থান অর্জনকারী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র আলমডাঙ্গার কালিদাসপুরের সন্তান মেহেদী হাসানের। ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে গত বৃহস্পতিবার সে ঢাকা মহাখালী ক্যান্সার ইনস্টিটিউটে মৃত্যুবরণ করে।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গার কালিদাসপুর গ্রামের রওশন আলীর একমাত্র ছেলে মেহেদী হাসান (২৪) কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি অনুষদের ৩য় বর্ষের মেধাবী ছাত্র ছিলো। মেহেদী এতোটাই মেধাবী ছাত্র ছিলো যে, যশোর বিএএফ শাহীন কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে যশোর বোর্ডে মানবিক বিভাগে ১ম স্থান অর্জন করে। পরে নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েও সে মেধার দ্যুতি ছড়িয়েছিলো। সম্প্রতি দাঁতের সমস্যার কারণে সে চিকিৎসকের নিকট চিকিৎসার জন্য গেলে তার ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ে। সর্বনাশা রোগ শনাক্তের পরপরই তাকে ঢাকার মহাখালীস্থ ক্যান্সার ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। সেখানেই মেহেদীকে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছিলো। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার বিকেলে মেহেদী মারা যায়। গতকাল বিকেলে জানাজা শেষে তার লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

মেহেদী হাসানের স্বপ্ন ছিলো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়ার। সেজন্য জন্য ডিপার্টমেন্ট ১ম হওয়ার জন্য বরাবরই সে অক্লান্ত পরিশ্রম করতো বলে তার সহপাঠীর অনেকের মন্তব্য। কিন্তু মেহেদী হাসানের সে স্বপ্ন পূরণ হলো না। স্বপ্ন বাস্তবায়নের আগেই পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে হলো তাকে। স্বপ্ন পূরণ হলো না তার বাবা-মাসহ আত্মীয় পরিজনের।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *