ঘন কুয়াশা ও হিমেল হাওয়ায় আবার কাঁপছে দেশ

 

স্টাফ রিপোর্টার: দু দিন বিরতির পর মঙ্গলবার থেকে আবারও বেড়েছে শীতের তীব্রতা। বর্তমানে দেশে শৈত্যপ্রবাহ নেই। কিন্তু সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পার্থক্য হ্রাস এবং ঘন কুয়াশা ও হিমেল বাতাসে শীতের তীব্রতা বৃদ্ধির কারণ বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। মাসের বাকি দিনে শীত কমার তেমন সম্ভাবনা নেই। গতকাল মঙ্গলবার ঘন কুয়াশা ও তীব্র শীতে দুর্ভোগে পড়ে দেশবাসী। সড়ক ও নৌপথে যান চলাচল মারাত্মক বিঘ্নিত হয়। শীতজনিত কারণে দৌলতপুরে দুজনের মৃত্যু ঘটে। এ নিয়ে চলতি মরসুমে শীতে মৃত্যুর সংখ্যা ৪২ জনে দাঁড়িয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ঘন কুয়াশা, দিনের তাপমাত্রা হ্রাস এবং ঠাণ্ডা বাতাসের কারণে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। ঘন কুয়াশায় ওপরে উঠতে পারছে না জলীয় বাষ্প। শিশির ভেজা মাটির শুকানোর সুযোগ থাকছে না। মাঝে মধ্যে সূর্যের দেখা মিললেও উত্তাপ থাকে না। দিনের অধিকাংশ সময় কুয়াশার চাদরে মোড়ানো থাকে আকাশ। এমন অবস্থা জানুয়ারির বাকি দিনে চলতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, আজ বুধবার আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। আজ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

Leave a comment

Your email address will not be published.