গাংনীর বামন্দীতে দুর্বৃত্তদের আগুনে পুড়লো মাইক্রোবাস ও দোকান

গাংনী প্রতিনিধি: দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে পুড়ে গেছে একটি মাইক্রোবাস ও দোকানের কিছু অংশ। গতকাল সোমবার ভোরের দিকে মেহেরপুর গাংনী উপজেলার বামন্দী বাজারের শিমুল অটোজ নামের একটি মোটর পাটর্স দোকানে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনে ৭ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে জানিয়ে ভুক্তভোগীরা বলেন, পূর্বশত্রুতার জের ধরেই আগুন দেয়া হয়েছে। তবে বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে পুলিশ।

জানা গেছে, বামন্দী বাজার বাসস্ট্যান্ডের অদূরে অবস্থিত শিমুল অটোজের সামনে প্রতিদিনের ন্যায় মাইক্রোবাস রেখে বাড়ি ফেরেন এর মালিক ইন্তাজ আলী। ভোরের দিকে মাইক্রোবাস ও দোকানে দাউদাউ করে আগুন জ্বলতে দেখে স্থানীয়রা আগুন নেভানোর উদ্যোগ নেয়। কিন্তু আগুনের লেলিহান শিখায় পুড়ে যায় মাইক্রোবাসটি। আগুন ছড়িয়ে পড়ে দোকানের কিছু অংশে। দোকানের মালামালও পুড়ে যায়। স্থানীয়রা জানান, ভোর ৫টা পর্যন্ত বাজারে নৈশপ্রহরীরা ছিলেন। তারা নির্ধারিত সময় পর্যন্ত ডিউটি শেষ করে বাজার ত্যাগ করলে আগুনে দেয়া হয়ে থাকতে পারে। পারিপার্শ্বিক বিষয় বিবেচনা করে দেখা যাচ্ছে- অজ্ঞাত কেউ আগুন দিয়ে থাকতে পারে বলে মন্তব্য বাজারের অনেকের। দোকান মালিক জানান, তার ভাই আব্দুল আলিমকে ২০১২ সালে বাজারে অদূরে দিনেদুপুরে গুলি করে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছিলো। সম্প্রতি হত্যা মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন (চার্জশিট) আদালতে দাখিল করেছে পুলিশ। চার্জশিট অন্তর্ভুক্ত কয়েকজন আসামি তাকে হুমকি দিচ্ছিলো। তাদের নাম চার্জশিটে থাকায় ইন্তাজ আলী তাদের রোষানলে পড়ে। এ ঘটনার জের ধরে মাইক্রোবাস ও দোকান পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ ইন্তাজ আলীর। তবে ঘটনা যাই হোক তা পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে আসবে বলে জানান গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন। ভুক্তভোগীরা অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানান তিনি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.