গাংনীর ধলা গ্রামে দুপক্ষের সংঘর্ষ : টুটুল মেম্বার পক্ষের লোকজন অবরুদ্ধ

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার লক্ষ্মীনারায়ণপুর ধলা গ্রামে দু পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সাবেক মেম্বার আতিয়ার রহমান পক্ষের লোকজন প্রতিশোধ পরায়ণ হয়ে উঠেছে। গতকাল শনিবার সকালে আব্দুল ওয়াহাব (৫৫) নামের একজনকে বেধড়ক মারপিট করেছে আতিয়ার রহমান পক্ষের লোকজন। আহত আব্দুল ওয়াহাব ওই গ্রামের মহাসিন আলীর ছেলে ও বর্তমান মেম্বার আজমাইন হোসেন টুটুল পক্ষের।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতের সংঘর্ষের পর উভয়পক্ষের নয়জন আহত হয়। এদের মধ্যে কয়েকজন বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। আতিয়ার রহমান পক্ষের আহত চারজনের মধ্যে একজনের অবস্থা এখনো আশঙ্কাজনক। এর প্রতিশোধ নিতেই শুক্রবার রাত থেকেই আতিয়ার রহমান পক্ষের লোকজন মরিয়া হয়ে ওঠে। রাত থেকে শনিবার ভোর পর্যন্ত ওই গ্রামে পুলিশি প্রহরা ছিলো। সকালে প্রহরা উঠে গেলে আতিয়ার রহমান পক্ষের সামিদুল ও মানিকের হামলায় আহত হন আব্দুল ওয়াহাব।

আব্দুল ওয়াহাব জানান, সিঙ্গাপুর ফেরত ছেলেকে আনার জন্য তিনি ঢাকার উদ্দেশ্যে সকালে বাড়ি থেকে রওনা দেন। মাইলমারী মোড়ে মজনু মিয়ার ফ্লেক্সিলোডের দোকানে রিজার্চ করার জন্য দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় পেছন থেকে সামিদুল তাকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে। বেধড়ক পিটুনিতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়ে জ্ঞাণ হরিয়ে ফেলেন। স্থানীয়দের সহায়তা তিনি চিকিৎসা নিলেও হাসপাতালে যেতে দেয়া হয়নি এবং হামলাকারীরা তার পকেটে থাকায় দুই লাখ টাকা লুটে নিয়েছে বলে অভিযোগ আব্দুল ওয়াহাবের। আজমাইন হোসেন টুটুলপক্ষের কয়েকজন নারী অভিযোগ করে বলেন, ঘটনার পর থেকেই তাদের পরিবারগুলো পুরুষ শূন্য। আতিয়ার রহমান পক্ষের লোকজন গ্রামে মহড়া দিচ্ছেন। এতে নারীরা রয়েছেন চরম আতঙ্কে। শনিবার তাদের জমিতে কাজ করতে কাউকে যেতে দেয়া হয়নি। গরু-ছাগল গোয়ালেই বাধা রয়েছে। আজমাইন হোসেন টুটুল মেম্বারসহ আহত কয়েকজন হাসপাতালে ভর্তি থাকলেও তাদেরকে দেখতে যেতে পারছেন না। কার্যত শনিবার দিনব্যাপী তারা নিজগৃহে অনেকটাই বন্দি অবস্থায় রয়েছেন। আতিয়ার রহমান পক্ষের সিপাত, আজমাইন, টিপু, সামিদুল, মানিক, তাজমত, নাহিদ, মনা ও মোশারফসহ কয়েকজন গ্রামে মহড়া দিচ্ছেন। বাড়ি থেকে বের হয়ে রাস্তায় উঠলেই মারধর করা হবে বলে হুমকি দিচ্ছেন। রাস্তা দিয়ে গালিগালাজ করতে করতে তারা পাহারা করছে। এতে স্বাভাবিক চলাফেরা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। আতঙ্কে অনেক নারী বাড়ি থেকে বের হচ্ছেন না। অপরদিকে আহত আব্দুল ওয়াহাব মামলা করতে থানায় যেতে পারছেন না। তবে অভিযুক্তদের খোঁজ করে কারো দেখা পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, কাথুলী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার লক্ষ্মীনারায়ণপুর ধলা গ্রামের আতিয়ার রহমান ও বর্তমান মেম্বার আজমাইন হোসেন টুটুল পক্ষের মধ্যে শুক্রবার রাতে সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় পক্ষের নয়জন আহত হন। পুর্ব বিরোধ ও বাড়ির পাশের সামান্য কিছু জমি নিয়ে ওই সংঘর্ষ হয় বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.