গাংনীর তেরাইলে ডাকাতের হামলায় মা-মেয়ে জখম : এক ডাকাত গ্রেফতার

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার তেরাইল গ্রামে ডাকাতদলের ধারলো অস্ত্রের আঘাতে সাইমা খাতুন (৩৬) ও তার মেয়ে শোভা আক্তার (১৫) আহত হয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে এ হামলার সময় গোলাম মোস্তফা (৩২) নামের এক ডাকাতসদস্যকে ধরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে গ্রামবাসী। গোলাম মোস্তফার বাড়ি সদর উপজেলার টেঙ্গর মাঠ গ্রামে।

স্থানীয় ও পুলিশসূত্রে জানা গেছে, তেরাইল গ্রামের দুবাই প্রবাসী সাবান আলীর বাড়িতে একদল সশস্ত্র ডাকাতদল হানা দিয়ে গেটের গ্রিলের তালা ভেঙে বাড়ির ভেতের প্রবেশ করে লুটপাট চালায়। এ সময় বাধা দিলে প্রবাসীর স্ত্রী সাইমা ও মেয়ে শোভাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। তাদের চিৎকারে প্রতিবেশীরা জড়ো হয়ে ডাকাতদলের সদস্য গোলাম মোস্তফাকে ধরে গণপিটুনি দেয়। পরে গাংনী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফারুকুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স মোস্তফাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন। আহত মা-মেয়েকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার দুপুরে গাংনী থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছেন সাবান আলীর ভাই ইউপি সদস্য জিয়ারুল ইসলাম। মোস্তফাকে প্রধান আসামি করে ডাকাতদলের আরো কয়েকজন সদস্যকে আসামি করা হয়েছে। মোস্তফার কাছ থেকে ডাকাতদলের সদস্যদের সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন গাংনী থানার উপপরিদর্শক ফারুকুল ইসলাম।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *