গাংনীর তেঁতুলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যানের কক্ষে তালা : নেপথ্যে দুর্নীতি

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার তেঁতুলবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে। ইউপি পরিচালনায় দুর্নীতির অভিযোগ তুলে পরিষদের সদস্যরা (মেম্বারবৃন্দ) গতকাল মঙ্গলবার সকালে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে প্রতিবাদ জানান। চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের সাথে বাগবিতণ্ডার এক পর্যায়ে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, জাহাঙ্গীর আলম ২০১৬ সালের নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। শপথের পর থেকেই তিনি ইউনিয়ন পরিষদকে অন্ধকারে রেখে নিজের খেয়াল-খুশিমতো কার্যক্রম পরিচালনা করতে থাকেন। এলজিএসপি, টিআর-কাবিখা, এক ভাগ (ওয়ান পারসেন্ট), কর্মসৃজন, সোলার প্যানেল স্থাপনে আত্মীয়করণ ও ভিজিডি-ভিজিএফসহ কোনো কাজেই তিনি ইউপি মেম্বারদের অবহিত করেননি। নিজের ইচ্ছেমতো মনগড়া প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (পিআইসি) দেখিয়ে অর্থ আত্মসাত করছেন বলে অভিযোগ মেম্বারদের। এসব বিষয় নিয়ে মেম্বারদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছিলো। বিষয়টি সুরাহার জন্য গতকাল সকালে ১২ জন মেম্বার তেঁতুলবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদে একত্রিত হন। চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম মেম্বারদের কোনো সদুত্তোর না দিয়ে পরে দেখা হবে বলে জানান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মেম্বাররা তার প্রতি অনাস্থা প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়ে কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেন।

কয়েকজন মেম্বার জানান, ইউনিয়ন এলাকায় সোলার প্যানেল স্থাপন করা হচ্ছে। জাহাঙ্গীর আলম আত্মীয়স্বজন ও কাছের লোকদের মাঝে স্বেচ্ছাচারী সিদ্ধান্তের মধ্যদিয়ে বণ্টন করেছেন। জনগণের ভোটে মেম্বাররা নির্বাচিত হলেও তারা জনগণের কোনো প্রকার সেবা দিতে পারছেন না। বিধবা ও বয়স্ক ভাতা কার্ড বিতরণেও তিনি মেম্বাররদের কোনো সুপারিশ গ্রহণ করেন না। তাই বাধ্য হয়ে তালা মেরেছেন মেম্বাররা। এ ব্যাপারে জানতে চেয়ে জাহাঙ্গীর আলমের মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান। এদিকে দুপুরে মেম্বাররা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে যান। দুপক্ষ নিয়ে তিনি বিষয়টি প্রাথমিকভাবে মীমাংসা করে দেন। পরে অবশ্য কক্ষের তালা খোলা হয়েছে। তবে মেম্বারদের ক্ষোভ এখনো মেটেনি বলে ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *