গাংনীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্র নিহত

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় বাধন হোসেন (১৫) নামের এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গাংনী-হাটবোয়ালিয়া সড়ক দিয়ে দ্রুত গতিতে মোটরসাইকেল চালানোর সময় আলমসাধুর সাথে ধাক্কা লাগে।
নিহত বাধন হোসেন এ উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী কারি মিয়ার ছেলে ও গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের ১০ম শ্রেণির ছাত্র। এ ঘটনায় নিহত বাধনের সহপাঠী জাহিদ হোসেনকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাধন হোসেন স্কুল থেকে মোটরসাইকেলযোগে সহপাঠী জাহিদ হোসেনের সাথে ঘুরতে বের হয়। ফেরার পথে গাংনী-হাটবোয়ালিয়া সড়কের গোপালনগর মাঠে মধ্যে পৌঁছায় দ্রুত গতিতে। এসময় গতি নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হলে মোটরসাইকেলটির সামনে থাকা স্যালো ইঞ্জিন চালিত একটি আলমসাধুর পেছনে গিয়ে ধাক্কা মারে। এতে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে রাস্তার পাশে গাছের সাথে ধাক্কা লাগে। মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত বাধনকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয় স্থানীয়রা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে দুপুর পৌঁনে ১২টার দিকে মারা যায় বাধন। দুর্ঘটনা কবলিত টিভিএস আরটিআর মোটরসাইকেলটিও ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাধন হোসেনের পিতা প্রবাসে থাকায় মায়ের সাথে নানাবাড়ি সদর উপজেলার মদনাডাঙ্গা গ্রামে বসবাস করে। মৃত্যুর পর অ্যাম্বুলেন্সযোগে মরদেহ নেয়া হয় মদনাডাঙ্গা গ্রামে। সেখানেই তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হরেন্দ্রনাথ সরকার বলেন, পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় মরদেহ ময়নাতদন্ত করা হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *