গাংনীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ভূয়া দাঁতের ডাক্তারের ১০ হাজার টাকার জরিমানা : মিতা ডেন্টাল সিলগালা

 

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনীতে এক ভূয়া ডাক্তারের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সাথে মিতা ডেন্টাল সিলগালা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান ও মো. মামুন এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত ভূয়া ডাক্তারের নাম আনারুল হক। তিনি কাথুলি মোড় এলাকার জামাত আলীর ছেলে। সনদপত্র ছাড়াই নিজেকে ডাক্তার দাবি করে চিকিৎসা দিচ্ছিলেন তিনি।

ভ্রাম্যমাণ আদালতসূত্রে জানা গেছে, কাথুলী মোড়ের হারুন শপিং কমপ্লেক্সের দোতলায় মিতা ডেন্টালের অবস্থান। সেখানে আনারুল ইসলাম নামের ওই ভূয়া ডাক্তার চিকিৎসকের সাইনবোর্ড টানিয়ে ব্যবসা করে আসছিলেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে তার প্যাডে নামের আগে ডাক্তার লেখা ও সিল ব্যবহার করার বিষয়টি ধরা পড়ে। তার কাছে বিএমডিসি সনদ দেখতে চাওয়া হয়। তবে তার বিএমডিসি সনদ নেই। কিন্তু দিনের পর দিন তিনি ডাক্তার দাবি করে রোগীদের সাথে চিকিৎসা প্রতারণা করে আসছেন।

ডাক্তার না হয়েও ডাক্তার দাবি করায় বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিল আইন ২০১০’র ২২ ধারায় তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। ওই ধারায় তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রায় ঘোষণার কিছুক্ষণের মধ্যে তিনি জরিমানা পরিশোধ করে মুক্তি পান। তবে ভূয়া ডাক্তারের মিতা ডেন্টালকে সিলগালা করে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *