কোটচাঁদপুরে নার্সের ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির জীবন বিপন্ন

কোটচাঁদপুরপ্রতিনিধি: কোটচাঁদপুরে একটি ক্লিনিকে প্রসূতি রোগীনিকে নার্স ওষুধ প্রয়োগে ভুল করায় প্রসূতির জীবন সঙ্কটাপন্ন হয়ে পড়েছে। তাৎক্ষণিক ভুল ধরা পড়ার পর চিকিৎসায় ওই প্রসূতি সুস্থ হয়েছে ঠিকই কিন্তু এজন্য প্রসূতিকে শারীরিক ও মানসিক কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে। এ ঘটনায় দায়িত্ব ও কর্তব্যকাজে অবহেলায় ওই নার্সকে চাকরিচ্যুত করায় নার্স ক্লিনিকমালিক ও ডাক্তারের বিরুদ্ধে থানায় নারী নির্যাতন মামলা ঠুঁকে দিয়েছেন। ঘটনাটি এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

মহেশপুর উপজেলার ফতেপুর গ্রামের ষষ্ঠি ঘোষের স্ত্রী দূর্গা রাণীর ৪ মাসের সন্তান গর্ভে নষ্ট হয়ে যায়। এঅবস্থায় তাকে গত ২১জুন কোটচাঁদপুরে মাহাবুবা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী ডাক্তার আনিচুর রহমান প্রসূতির বিশেষ অঙ্গে একটি ওষুধ প্রয়োগের জন্য নার্স চিত্রা সরকারকে নির্দেশ দেন। নার্স চিত্রা সরকার ডাক্তারের নির্দেশ না মেনে ওষুধটি প্রসূতির মুখে খাওয়ান। নার্সের দেয়া ওষুধ সেবনের পর প্রসূতির নানা শারীরিক জটিলতা দেখা দেয়। কর্তব্যরত ডাক্তার ওই নার্সের কাছ থেকে ঘটনা জেনে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেন। এঘটনায় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ দায়িত্ব ও কর্তব্যকাজে অবহেলায় ওই নার্সকে চাকরিচ্যুত করে। এরপরই চাকরিচ্যুত নার্স চিত্রা সরকার ক্লিনিক কর্তৃপক্ষকে শায়েস্তা করতে ক্লিনিক মালিক ও ডাক্তারের বিরুদ্ধে গত ২৩ জুন থানায় নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.