কুষ্টিয়া নৃসিংহপুরের গৃহবধূর লাশ হাসপাতালে ফেলে লাপাত্তা স্বজন- স্বামী-ভাসুর গ্রেফতার : হত্যা মামলা দায়ের

 

জামজামি প্রতিনিধি: ইবির নৃসিংহপুরে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার চিকিৎসার জন্য গৃহবধূকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিলে তার মৃত্যু হয়। শুক্রবার মধ্যরাতে গৃহবধূ স্বপ্না রাণীর লাশ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ফেলে সটকে যায় স্বজনরা। খবর পেয়ে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য গৃহবধূর লাশ মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় স্বামীসহ দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। গৃহবধূর পিতা বাদী হয়ে ইবি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, কুষ্টিয়া ইবি থানার মনোহরদিয়া ইউনিয়নের নুসিংহপুর গ্রামের বাসুদেব সাঁধুখার স্ত্রী স্বপ্না রানীর (২৫) মৃত্যুতে রহস্য দানা বেধেছে। গত শুক্রবার মধ্যরাতে মুমূর্ষু অবস্থায় স্বপ্নাকে কুষ্টিয়া জেলারেল হাসপাতালে নিলে তার মৃত্যু হয়।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছে, গত শুক্রবার সন্ধ্যারাতে ভাসুর পলানের স্ত্রীর সাথে ঝগড়া হয় গৃহবধূ স্বপ্নার। এ ঘটনার জেরে স্বামী বাসুদেব তাকে শারিরীক নির্যাতন করে।

নির্যাতনের কথা স্বীকার করে বাসুদেব জানান, মধ্যরাতে স্বপ্না দানাদার ফুরাডান বিষপান করেন। যন্ত্রণায় কাতরানোর শব্দে ঘুম ভেঙে যায় বাসুদেবের। মুমূর্ষু অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিলে স্বপ্নার মৃত্যু হয়। এ সময় চিকিৎসক অনৈতিক দাবি করলে মরদেহ ফেলে টাকা নিতে বাড়ি ফেরেন তিনি। এ সময় পুলিশ গিয়ে পরিবারের লোক না থাকায় সন্দেহের ফলে ময়নাতদন্তের জন্য স্বপ্নার লাশ মর্গে পাঠায়।

এদিকে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে স্বামীসহ দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বেলা ১১টার দিকে ঝাউদিয়া তৈলটুপি ব্রিজমোড় থেকে স্বর্গীয় অমুল্য সাঁধুখার ছেলে বাসুদেব ও পলানকে গ্রেফতার করা হয়। এ ব্যাপারে নিহত স্বপ্নার বাবা চিত্তকুণ্ডু বাদী হয়ে ইবি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *