কুষ্টিয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে প্রকৌশলী স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ায় পরকীয়া প্রেমের জের ধরে স্ত্রীকে কেরোসিন ঢেলে হত্যার দায়ে প্রকৌশলী স্বামী এরশাদ হোসেন বিপুকে যাবজ্জীবন করাদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত। সেই সাথে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছর কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো. বারেকুজ্জামান এ রায় দেন।

আদালতসূত্রে জানা যায়, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা বিদ্যুত বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী এরশাদ হোসেন বিপু ২০০৮ সালের ৬ এপ্রিল বিকেল ৫টার দিকে পরকীয়া প্রেমের জের ধরে তার স্ত্রী শিখাকে কুষ্টিয়ার শহরের হাউজিংস্থ নিজ বাড়িতে গায়ে কেরোসিন ঢেলে হত্যা করেন। এ ঘটনায় গৃহবধূ শিখার পিতা মো. সিরাজুল ইসলাম বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় নিহতের স্বামী প্রকৌশলী এরশাদ হোসেন বিপু, তার ছোট ভাই ইফতিয়ার হোসেন বিজু ও পরকীয়া প্রেমিকা রাশেদা খাতুনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। গতকাল মঙ্গলবার বিজ্ঞ আদালত বাকি দুজন আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করে নিহত গৃহবধূ শিখার স্বামী কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা বিদ্যুত বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী আসামি এরশাদ হোসেন বিপুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদানের এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি এরশাদ হোসেন বিপু আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষের মামলাটি পরিচালনা করেন পিপি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী এবং আসামিপক্ষের ছিলেন অ্যাডভোকেট অধ্যাপক আমিরুল ইসলাম।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *