কুষ্টিয়ায় ব্যবসায়ী আলমগীর হত্যা মামলায় ৪ জনের ফাঁসি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া মডেল থানায় দায়ের করা এনএস রোডের জুতো ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন হত্যা মামলায় ৪ জন আসামির ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে এ ফাঁসির রায় দেয়া হয়। কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক রেজা মো. আলমগীর হাসান এ রায় দেন। মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন মো. হাসান (২০), সালমান (১৯), রাহাতুজ্জামান (২০) ও নিশিকান্ত ঘোষ (১৯)। এদের মধ্যে নিশিকান্ত ঘোষ (১৯) পলাতক রয়েছে। মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১৯ জানুয়ারি কুষ্টিয়া শহরের নবাব সিরাজউদ্দৌলা সড়কে (এনএস রোড) আলমগীর হোসেন নামে এক জুতো ব্যবসায়ীকে নিজ বাড়িতে গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরে দুর্বৃত্তরা আলমগীরের লাশ ওই বাড়ির ৩য় তলার একটি ঘরে রেখে বাইরে থেকে দরজায় তালা দিয়ে চলে যায়। পর দিন সকালে তালা ভেঙে আলমগীরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় আলমগীরের ভাই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে কুষ্টিয়া সদর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে হত্যামামলা দায়ের করেন।

                পরে পুলিশি তদন্তে ৪ জনের নাম বেরিয়ে আসে। এর মধ্যে পুলিশ কুষ্টিয়া শহরের আড়ুয়াপাড়া এলাকার হারুনের ছেলে হাসান, একই এলাকার বশির আহমেদের ছেলে সালমান ও শহরের রাজারহাট এলাকার আব্দুর রহিমের ছেলে রাহাতুজ্জামান ওরফে সাইমনকে গ্রেফতার করে। এছাড়া অপর আসামি ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের কেষ্ট ঘোষের ছেলে নিশিকান্ত ঘোষ ঘটনার পর থেকে পলাতক। পরে পুলিশ এ চারজনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়। মামলাটি সেশন ৭৮৯/১৪ নং মামলায় নথিভুক্ত হয়ে বিচার কাজ শুরু হয়। রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৪ জনকে ফাঁসির রায় প্রদান করেন। এ রায় ঘোষণার সময় ১ আসামি পলাতক ও ৩ আসামি আদালতে হাজির ছিলো। রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন সরকারি কৌসুলি পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী। মামলার রায়ে নিহত আলমগীরের ভাই ও মামলার বাদী জাহাঙ্গীর আলম সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। তিনি দ্রুত এ মামলা রায় কার্যকর করার দাবি জানান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *