কুষ্টিয়ায় গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার মিরপুরে যৌতুকের দাবিতে কমলা (২৪) নামের দুই সন্তানের জননীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে দাফন করা হয়েছে। নিহত কমলা উপজেলা পোড়াদহ ইউনিয়নের জুলহকের ছেলে মানিকের স্ত্রী এবং উপজেলার আমলা ইউনিয়নের বুরাপাড়া গ্রামের সেকেন্দার আলীর মেয়ে। নিহতের বাবা সেকেন্দার আলী অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে যৌতুকের দাবিতে আমার মেয়ে কমলাকে শারীরিক নির্যাতন করছে তার স্বামী মানিক। এরই জের ধরে সোমবার দুপুরে কমলার স্বামী, শ্বশুর জুলহক, শাশুড়ী শাহানারা, ভাসুর তোতা এবং ননদ কুসুম মিলে আমার মেয়েকে বাড়ির ছাদে নিয়ে নির্যাতন চালায়। এক পর্যায়ে কমলা মারা যায়। তারপর সেটাকে আত্মহত্যা বলে চালাই।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানায়, বেশ কিছুদিন ধরেই কমলার ওপরে নির্যাতন চালাতো তার পরিবারের লোকজন। সোমবার দুপুরেও তার ওপরে নির্যাতন চালানো হয় বলেও জানায় তারা। এ ব্যপারে আহাম্মদপুর ক্যম্পের ইনচার্জ মাজাহারুল ইসলাম জানান, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। আমরা লাশের ময়নাতদন্ত করেছি। রিপোর্ট আসলেই তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। অভিযুক্ত মানিকের ফুফাতো ভাই শিপন জানান, কোনো মনমালিন্য ছাড়াই আপনা আপনি বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। তাকে কেনো নির্যাতন করা হয়নি। তবে এ ঘটনার পর থেকে কমলার স্বামী মানিক, শ্বশুর জুলহক, শাশুড়ী শাহানারা, ভাসুর তোতা পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আকতারুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় মিরপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *