কুষ্টিয়ার শিলাইদহের কসবাঘাটে পুলিশ-সন্ত্রাসীর গুলির লড়াই

প্রবাসী রাকিবুল হত্যা মামলার আসামি শাহীন নিহত
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে প্রবাসী যুবক রাকিবুল হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি সন্ত্রাসী শাহীন (৩০) নিহত হয়েছেন। সে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার নুরপুর গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি বিদেশি পিস্তল, ৪ রাউ- গুলি ও হেঁসো উদ্ধার করেছে। গতকাল শুক্রবার ভোরে উপজেলার কুমারখালী শিলাইদহ কসবাঘাটে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশের ৪ সদস্য আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে পুলিশ।
কুমারখালী থানার ভারপ্রাাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল খালেক জানান, গত রোববার সকালে কুমারখালী বাধবাজার এলাকায় কালী নদী থেকে প্রবাসী রাকিব হোসেনের হত্যা করা লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী দুজনসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করে ইতোমধ্যে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে মামলার এজাহারভুক্ত অন্যতম আসামি শাহিনকে লাহিনীপাড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি জানান, তার অন্য সহযোগীরা কসবা এলাকায় পদ্ম নদীর পাড়ে গোপন বৈঠক করছে। পরে তাকে নিয়ে রাত ২টার দিকে সেখানে অভিযানে যাওয়া হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় শাহিন পালাতে গেলে গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে উদ্ধার করে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সন্ত্রাসী শাহীন কুষ্টিয়ার কুমারখালীর প্রবাসী রাকিবুল হত্যা মামলার আসামি। সে রাকিবুলকে হত্যার জন্য তার বউ ও ভায়ের কাছ থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা নিয়েছিলেন।
উল্লেখ্য স্ত্রী ও ছোট ভাইয়ের পরকীয়ার সম্পর্কের জের ধরে গত বৃহস্পতিবার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরারাকিবুলকে হত্যা করে স্থানীয় কালীগঙ্গা নদীতে ফেলে দেয়। হত্যার তিনদিন পর রোববার নদী থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *