কুষ্টিয়ার মিরপুরে ডাকাতির কবলে গরুব্যবসায়ী

 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ভেড়ামারা-পোড়াদহ সড়কের ছাতিয়ান ইউনিয়নের কইমারা নামক স্থানে গতকাল শনিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৮ টার দিকে দুর্ধর্ষ ডাকাতির কবলে পড়ে কয়েকজন গরুব্যবসায়ী। এ ঘটনায় ২০ লক্ষাধিক টাকা ডাকাতরা লুটে নিয়েছে বলে জান গেছে। লুটের শিকার গরুব্যবসায়ীদের সবার বাড়ি মিরপুর পৌরসভা ও পৌরসভার পাশ্ববর্তী ফুলবাড়িয়া ইউনিয়নে বলে জানা গেছে।

জানা যায়, প্রায় ২০/২৫ জন গরুব্যবসায়ী ও তাদের সহযোগী রাখালদের নিয়ে ৩টি ইঞ্জিন চালিত স্টিয়ারিং গাড়িতে করে বাড়িতে ফিরছিলেন ডাকাতির শিকার গরুব্যবসায়ীরা। তারা ফিরছিলেন কুষ্টিয়া সদর থানার বানিয়াপাড়া গরুর হাটে গরু বিক্রি করে। উল্লেখিত স্থানে এসে পৌঁছুলে সড়কে গাছ ফেলে তাদের গাড়িগুলোর গতিরোধ করে ডাকাতেরা। সেখানে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা প্রায় ১৫/২০ জনের মুখোশধারী একদল সশস্ত্র ডাকাত অস্ত্রের মুখে গরুব্যবসায়ীদের কাছে থাকা নগদ টাকা ও মুঠোফোন ছিনিয়ে নেয়। তারপর কইমারী মাঠের পাশে মৎসচাষি সুজনের পুকুরে যাওয়ার রাস্তা দিয়ে ছাতিয়ানের সাপকামড়া গ্রামের দিকে চলে যায়।

রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উপজেলার ফুলবাড়িয়া ইউনিয়নের গেটপাড়ার গ্রামের মৃত আরজান আলীর ছেলে সিরাজুল ইসলামের ৫৯ হাজার টাকা, একই গ্রামের মৃত আব্দুল গণীর ছেলে বেনির ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা, মৃত বাল্লকের ছেলে দেলের ১০ হাজার টাকা এবং পৌরসভার বিজিবি সেক্টর পাড়ার আইনের ছেলে রফিকুলের ২ লক্ষাধিক টাকা লুট হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে মিরপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আব্দুল আলিমকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, ডাকাতির সংবাদ শুনে তারা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌছে ঘটনাটিকে গুরুত্বের সাথে দেখছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *