কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে লাশ নিয়ে বিক্ষোভ : অভিযুক্ত এএসআই প্রত্যাহার

স্টাফ রিপোর্টার: কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পুলিশ হেফাজতে নিহত জাফর সাদিক ওরফে জাফরের লাশ নিয়ে বিক্ষুব্ধ জনতা বিক্ষোভ করেছে। গত রোববার রাত ৯টা থেকে গভীররাত পর্যন্ত ওই যুবকের লাশ নিয়ে উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের প্রাগপুর চরপাড়া গ্রামের শ শ বিক্ষুব্ধ জনতা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে হত্যাকারীর শাস্তি দাবি করে।

নিহত জাফরের ভাই মুস্তাফিজুর রহমান জানান, তার ভাইকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে পুলিশ মনগড়া ময়নাতদন্ত করে তাদের পক্ষে রিপোর্ট দিয়েছে। তিনি দাবি করেন, পুলিশ তার ভাইকে পিটিয়ে হত্যা করে ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা করছে। লাশ নিয়ে মিছিলের খবর পেয়ে ভেড়ামারা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সিএ হালিম সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে ওইদিন রাত ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিক্ষুব্ধ জনতাকে শান্ত করেন।

এদিকে জাফর সাদিক নিহত হওয়ার দু দিন পর গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টায় তার দাফন সম্পন্ন করা হয়। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম গেদু জানান, একটি মহল লাশ নিয়ে রাজনীতি করার অপচেষ্টা করছিলো। সেটা আর সম্ভব হয়নি। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে লাশের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। অপরদিকে ঘটনায় জড়িত ও অভিযুক্ত তেকালা ক্যাম্পের এএসআই মাসুদকে গতকাল প্রত্যাহার করা হয়েছে। তার স্থলাভিসিক্ত হয়েছেন দৌলতপুর থানার এএসআই রঘুনাথ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, দৌলতপুর থানার ওসি আবদুল খালেক।

উল্লেখ্য, প্রাগপুর চরপাড়া গ্রামের মাদক মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি জাফর সাদিককে শুক্রবার রাতে তেকালা ক্যাম্পের এএসাআই মাসুদ গ্রেফতার করেন। শনিবার রাতে তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে দৌলতপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় জাফর সাদিক মারা গেলে নিহতের পরিবার দাবি করেন, তেকালা ক্যাম্পের এএসআই মাসুদ গ্রেফতারের পর তাকে পিটিয়ে হত্যা করে ঘটনা ধামাচাপা দিতে ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা করছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *