কালীগঞ্জে বিষাক্ত স্পিরিট পানে দু ভাইসহ ৪ জনের মৃত্যু

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে বিষাক্ত স্পিরিট পান করে দু ভাই ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে আরো তিন জন। গত রোববার মধ্যরাতে উপজেলার বারোবাজার বেদেপল্লীতে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার গ্রামের বাহার আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম (৩৭) ও মোজ্জাম্মেল হক (৪৫), তোয়াক্কেল আলীর ছেলে নবাই মণ্ডল (৩৫) এবং কোটচাঁদপুর উপজেলার সলেমানপুর গ্রামের পটু সরদারের ছেলে মন্টু সরকার (৩০)।

বেদে পল্লীর সরদার রেজাউল ইসলাম জানান, গত রোববার রাতে কালীগঞ্জের বারোবাজারের অবৈধ স্পিরিট বিক্রেতা বাহার আলীর ছেলে খায়রুলের কাছ থেকে স্পিরিট কেনে বেদে পল্লীর লোকজন। একসাথে পান করার কিছুক্ষণের মধ্যেই তারা একে একে অসুস্থ হয়ে পড়ে। মধ্যরাতে তাদের যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চার জনের মৃত্যু হয়। অসুস্থ অবস্থায় বারোবাজারের আমির হোসেনের ছেলে বিল্লাল হোসেন (২৩), জাহা বক্সের ছেলে জামির আলী (৪০) ও তার স্ত্রী ছোট বুড়ি (৩০) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি মনির উদ্দীন মোল্লা জানান, গত রোববার রাতে বারবাজারের মহিষাহাটি বেদে পল্লীতে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে তারা স্পিরিট পান করে অসুস্থ হয়। পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ওই এলাকায় খাইরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি অবৈধভাবে স্পিরিট বিক্রি করে আসছিলো। তবে এ ঘটনার পর থেকে খাইরুল পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *