এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর চারদিন আগে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের এক পরীক্ষার্থীর পেটে চাপাতির কোপ : ১০ সেলাই

স্টাফ রিপোর্টার: আজ বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে এইচএসসি পরীক্ষা। এ পরীক্ষার চার দিন আগে গতকাল চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সামনে শহীদ মিনারের অদূরে এক পরীক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল জুবায়ের নাফিউকে চাপাতির কোপে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
আব্দুল্লাহ আল জুবায়ের নাফিউ চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের ছাত্র। সে জেলা শহরের গুলশানপাড়ার গোলাম আজম পিনার ছেলে। কেন তার ওপর হামলা চালানো হয়েছে তা নিশ্চিত করে জানা যায়নি। নাফিউ নিজেও তেমন কোনো অভিযোগ না করে বলেছে, কয়েকজন বন্ধু শহীদ মিনারের অদূরে দাঁড়িয়ে কথা বলছিলাম। এক বন্ধুর সাথে বাকবিত-া শুরু হলে কলেজের দিক থেকে কয়েকজন বড়ভাই ছুটে আসে। আমাদের থামতে বলে। একজন আমার পেটে চাপাতি দিয়ে কোপ মারে। আমি রক্তাক্ত জখম হলে কয়েকজনের সহযোগিতায় হাসপাতালে পৌঁছে চিকিৎসা নিতে শুরু করি। পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ পাবো কি-না জানি না। এ বিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেছেন, এখনও পর্যন্ত কোনো ছাত্রের তরফে তেমন কোনো আবেদন হস্তগত হয়নি।
অপরদিকে চাপাতি দিয়ে এইসএসসি পরীক্ষার্থীকে রক্তাক্ত জখমের সময় কলেজ ক্যাম্পাসে চলছিলো বাধন নামের একটি সংগঠনের রক্ত ফ্রি গ্রুপিং ক্যাম্পিং। হামলা দেখে সংগঠনের সদস্যদর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই ছোটা ছুটি শুরু করে। কলেজ ক্যাম্পাস তখন তটস্থ হয়ে ওঠে। নাফিউকে হাসপাতালে নেয়া হলে তার পেটে ১০টি সেলাই দেয়া হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *