উৎসবমুখর পরিবেশে চুয়াডাঙ্গায় নাইটিঙ্গেল প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন

আইপিএলর আদলে ক্রিকেট প্রতিযোগিতার আয়োজনকে ভুয়ষী প্রশংসা

 

স্টাফ রিপোর্টার: জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মধ্যদিয়ে চুয়াডাঙ্গায় নাইটিঙ্গেল প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় চুয়াডাঙ্গা ফুটবল মাঠে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসাইন আয়োজকদের প্রশংসা করেন এবং নাইটিঙ্গেল ক্রিকেট একাডেমীর উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, ক্রিকেট খেলোয়াড় গড়ে তোলার কাজে জেলা প্রশাসনের আন্তরিকতা রয়েছে। থাকবে।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এনপিএল ক্রিকেট লিগ-২০১৪-১৫’র কো-চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান জোয়ার্দ্দার মিজাইল। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে শুরু হয়। ক্রিকেট একাডেমীটি উদ্বোধন হওয়ার পর থেকে তার অর্জন, কার্যক্রম, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য কী তা বিশদে তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন একাডেমীর পরিচালক রকিবুল ইসলাম ইসলাম রাকিব।

আলোচনা পর্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসাইন বলেন, ‘আমি চুয়াডাঙ্গায় যোগদানের পরপরই এ ক্রিকেট একাডেমীর প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে অংশগ্রহণ করি। সেসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ক্রিকেটার মেহেরাব হোসেন অপি। এরপর থেকে এ একাডেমী তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। আমি আশা করি এ একাডেমী থেকে ভালো ভালো ও মেধা সম্পন্ন ক্রিকেটার তৈরি হয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থাসহ জাতীয় ক্রিকেটে অবদান রাখবে। স্বল্প পরিসরে হলেও বৈচিত্রময় ও ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেট লিগের আদলে এ আয়োজন সকলের নিকট প্রশংসিত হয়েছে। সেইসাথে চুয়াডাঙ্গার ক্রিকেট অঙ্গনের তরুণ উদীয়মান ক্রিকেটারদের ভালো ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।’ আলোচনা অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ফার্স্টক্যাপিটাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ চুয়াডাঙ্গা’র ট্রেজারার ভারপ্রাপ্ত ভিসি প্রফেসর আব্দুল মোত্তালেব, চুয়াডাঙ্গা সহকারী পুলিশ সুপার কামরুজ্জামান, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কেএম মামুন উজ্জামান, দৈনিক মাথাভাঙ্গার সম্পাদক ও প্রকাশক এনপিএল ক্রিকেট লিগের মিডিয়া পার্টনার সরদার আল আমিন ও বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ক্রিকেটার সৌম্য সরকারের পিতা কিশোরী মোহন সরকার। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দোকান-মালিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি আশাদুল হোসেন জোয়ার্দ্দার লেমন, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক হযরত, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ শেখ গোলাম মোস্তফা মাস্তার, এনপিএল ক্রিকেট লিগ-২০১৪-১৫’র সদস্য সচিব তরুণ ক্রীড়া সংগঠক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব, শঙ্করচন্দ্র ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান, এএফসি’র সাবেক ফুটবল কোচ সরোয়ার হোসেন মধূ, জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্মসম্পাদক শহিদুল কদর জোয়ার্দ্দার, ক্রীড়া সংগঠক পিন্টু কুমার আগরওয়ালাসহ চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকগণ।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের শুরতেই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসাইনকে নাইটিঙ্গেল ক্রিকেট একাডেমীর ক্রিকেটাররা ও কর্মকর্তারা ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে সারিবদ্ধভাবে মূল মঞ্চে নিয়ে যান। আলোচনা পর্ব শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদেরকে নাইটিঙ্গেল ক্রিকেট একাডেমীর পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। উপস্থিত অতিথি ছাড়াও যাদের সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয় তারা হলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুনের পক্ষে মতিয়ার রহমান, নাইটিঙ্গেল ক্রিকেট একাডেমীর সভাপতি চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটনের পক্ষে ক্রেস্ট গ্রহণ করেন প্যানেল মেয়র-২ শেখ গোলাম মস্তফা মাস্তার, ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক (বিপণন) এমদাদুল হক সরকারের পক্ষে চুয়াডাঙ্গা ওয়াল্টন এক্সক্লুসিভ ডিলার মাহফুজুর রহমান জোয়ার্দ্দার মিজাইল।

পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে দাঁড়িয়ে অতিথিরা পুরস্কার তুলে দেন এনপিএল ক্রিকেট লিগে অংশগ্রহণকারী ৮টি টিম মালিক, একাডেমির কোচ, আম্পায়ার, প্রতিযোগিতার শ্রেষ্ঠ দর্শক, বাউন্ডারির বাইরে থেকে ক্যাচ ধরা দর্শক, একাডেমী থেকে অনূর্ধ্ব-১৪ ক্রিকেটে খুলনা বিভাগীয় দলে ডাক পাওয়া হাসিব ও আকরামের পিতাকে, ২১টি ম্যাচের ম্যান অব দি ম্যাচ নির্বাচিত ক্রিকেটার, ম্যান অব দি সিরিজ, স্পিট অব দি স্মল ক্রিকেটারদের, রানার আপ ও চ্যাম্পিয়ন দলকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ ট্রফি দেয়ার পর এনপিএল ক্রিকেট লিগ-২০১৪-১৫’র সদস্য সচিব নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার তার পক্ষ থেকে চ্যাম্পিয়ন দলকে ১০.০০০/= (দশ হাজার টাকা), রানার আপ দলকে ৫,০০০/=(পাঁচ হাজার টাকা) করে প্রদান ও একাডেমীর ক্রিকেটারদের চড়ুইভাতি করানোর ঘোষণা দেন। প্রথম পর্বটি উপস্থাপনা করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান।

এরপর সভাপতি সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে প্রথম পর্বের ইতি টানেন। জুমার নামাজ ও মধ্যাহ্ন ভোজের পর দ্বিতীয় পর্বে শুরু হয় ক্রিকেট কুইজ প্রতিযোগিতা। এ পর্বে ১২০টি ক্রিকেট বিষয়ক কুইজ ও কুইজে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হয়। এ কুইজে একাডেমীর ক্রিকেটার ছাড়াও বাইরের দর্শকরা প্রশ্নোত্তর দিয়ে পুরস্কার জিতে নেন। দ্বিতীয় পর্বটি পরিচালনা করেন একাডেমীর পরিচালক ইসলাম রকিব, আশাদুজ্জামান আশা ও শাহজাহান আলী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *