ঈদের আগে-পরে পাঁচ দিন মহাসড়কে ট্রাক চলাচল বন্ধ

 

স্টাফ রিপোর্টার:বেহাল রাস্তার কারণে ঢাকা-চট্টগ্রাম ছয় ঘণ্টার রাস্তাযেতে সময় লাগছে প্রায় ১৬ ঘণ্টা। তিন ঘণ্টায় ময়মনসিংহ যেতে সময় লাগছে ৮/৯ঘণ্টা। মুন্সিগঞ্জ, কুমিল্লা, নরসিংদীসহ আশপাশের জেলায় দু ঘণ্টার রাস্তাপারি দিতে সময় লাগছে ৫ ঘণ্টার বেশি। মহাসড়কের এসব রাস্তা দ্রুত মেরামতসহযানজট নিরসনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নিলে ঈদে ঘরমুখো মানুষকে দুর্ভোগ থেকেমুক্তি দেয়া সম্ভব নয়। গতকালশুক্রবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ঈদব্যবস্থাপনা উপলক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের এক বৈঠকে প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকেসড়ক-মহাসড়কের এমন চিত্র উঠে আসে।বৈঠকে যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ২০ জুলাইয়ের মধ্যে রাজধানী ঢাকাসহসারাদেশের রাস্তা চলাচল উপযোগী করার নির্দেশ দেন। এছাড়াও ঈদ উপলক্ষে সড়ক ওজনপথ বিভাগের প্রকৌশলীসহ রেলওয়ের ঢাকার সকল কর্মকর্তার ছুটি বাতিল করাহয়েছে। রেলওয়ের কন্টেনার ও তেলবাহী গাড়ি ঈদের আগের তিনদিন ও ঈদের পরেরদুদিন বন্ধ থাকবে। ১০ দিনের মধ্যে রাজধানীর রাস্তা মেরামত করা হবে।সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগের সমন্বয়ে কন্ট্রোল রুম খোলা হবে। মহাসড়কে চাঁদাবাজিরোধে পুলিশের পক্ষ থেকে সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। মহাসড়কেপচনশীল পণ্য, তেল ছাড়া সকল প্রকার ট্রাক চলাচল ৫ দিন বন্ধ থাকবে। ১৫ রোজাথেকে মহাসড়কে নসিমন, করিমন, ভটভটিসহ অযান্ত্রিক পরিবহন চলাচল বন্ধ রাখারনির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সমাপনী বক্তব্যে যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সত্যকে চাপা দিয়ে লাভনেই। আমি সত্যকে চাপা দিলাম, রাস্তায় মানুষ কষ্ট করল, তা হতে পারে না। কোনোঅবস্থাতেই ব্যর্থ হওয়া যাবে না। সড়কের চলমান অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতেওয়েস্কেল মেশিনের বিকল্প নেই। ইতোমধ্যে বিভিন্ন স্থানে মেশিন বসানো হয়েছে।মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে পর্যায়ক্রমে সাতটি মেশিন বসানো হবে। ওয়েস্কেলপয়েন্টে দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে। যেখানে এই মেশিন বসানো হয়েছে সেখানেইঅনিয়ম আর দুর্নীতি আর চাঁদাবাজির আখড়ায় পরিণত হয়েছে। মেশিনকে পুঁজি করেচাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে। কোনো ওভারলোড গাড়ি মেশিন পয়েন্ট থেকে ফিরিয়ে দেয়ারনজির নেই।
তিনি ঈদের আগে পাঁচদিন ও পরে দুদিন মহাসড়কে পচনশীল দ্রব্য, তেলবাহী ট্রাকছাড়া সকল প্রকার পণ্য পরিবহন বন্ধ থাকবে। ঈদ সামনে রেখে ফুটপাথ দখলমুক্তকরা সম্ভব নয় একথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, তবে সহনীয় রাখার চেষ্টা করা হবে।ঈদের সময় নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করতে মহাসড়কে অনুমোদনহীন গাড়ি চলাচল বন্ধরাখতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, চন্দ্রাএলাকার ২৪ ফুটের রাস্তা প্রায় ৪০ ফুট প্রশস্ত করা হয়েছে। সাত দিনের মধ্যেরাস্তা পাকা হলে ঈদে কোনো সমস্যা হবে না। চট্টগ্রাম মহাসড়কে সিনো হাইড্রোরাস্তা মেরামত না করায় আমরা অন্যদের এ কাজে দায়িত্ব দিয়েছি।বৈঠকে রেলপথমন্ত্রী মজিবুল হক বলেন, এবারের ঈদ সামনে রেখে রেলওয়েতে ১৬৬নতুন কোচ যুক্ত করা হচ্ছে। সচল হয়েছে ২০৫টি ইঞ্জিন। ২০ জুলাই থেকে অগ্রিমটিকেট দেয়া শুরু হবে। বিভিন্ন রুটে স্পেশাল ট্রেন চলবে। যাত্রী হয়রানি ওটিকেট কালোবাজারি রোধসহ যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জিআরপি, রেলওয়েপুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ সহযোগিতা করবে। ঈদের সময় দুর্ঘটনাকবলিতট্রেন উদ্ধারে বিশেষ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়ে রেলওয়ের সহকারী পরিচালকতোফাজ্জল হোসেন বলেন, বেশিরভাগ মালবাহী গাড়ি দুর্ঘটনার শিকার হয়। তাইকন্টেনার ও তেলবাহী গাড়ি ঈদের আগের তিনদিন ও ঈদের পরের দুদিন বন্ধ থাকবে।তাছাড়া পাদুয়া ক্রসিং পয়েন্টে রাস্তার কার্পেটিং দ্রুত মেরামত করার কথাজানান তিনি।
বুয়েটের অধ্যাপক শামসুল হক বলেন, ঈদে মহাসড়কে দুই থেকে আড়াইগুণ পরিবহনেরচাপ বাড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নসিমন, করিমন, ভটভটি, মহেন্দ্রাসহঅনুমোদনহীন যানবাহন চলাচল বন্ধের পরামর্শ দেন তিনি। ওভারলোড ট্রাক চলাচলনিয়ন্ত্রণ, দ্রুত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা, রাস্তার জংশনগুলোর আড়াই শ’ মিটারের মধ্যে সকল প্রকার দখল উচ্ছেদসহ হাইওয়েতে গাড়ি চলাচলে শৃঙ্খলাফিরিয়ে আনার প্রস্তাব দেন তিনি। কলামিস্ট আবুল মকসুদ বলেন, নিরাপদ যোগাযোগব্যবস্থা গড়ে তুলতে রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক সদিচ্ছা দেখতে পাচ্ছি; যা আমাকেআশাবাদী করে তুলেছে। ঈদ-উল-আযহা ও দুর্গাপুজো পর্যন্ত নিরাপদ যোগাযোগব্যবস্থা গড়ে তোলার পরিকল্পনা নিতে পরামর্শ দেন তিনি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.