ইরাক ও সিরিয়ায় ইসলামী রাষ্ট্রকায়েমের ঘোষণা বিদ্রোহীদের

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ইরাক ও সিরিয়ার দখলকৃত বিস্তীর্ণ ভূখণ্ডে ইসলামীরাষ্ট্র কায়েমের ঘোষণা দিয়েছে কট্টরপন্থী সংগঠন ইসলামিক স্টেট ইন ইরাকঅ্যান্ড দ্য লিভেন্ট (আইএসআইএস)। ইন্টারনেটে পোস্ট করা একটি অডিও বার্তায় এঘোষণা দিয়েছে বিদ্রোহী সংগঠনটি।

বিদ্রোহীদেরবক্তব্য অনুযায়ী, একজন খলিফা এ রাষ্ট্রের শাসনভারের দায়িত্বে থাকবেন।ইসলামিক রাষ্ট্রটির নাম হবে ‘দ্য ইসলামিক স্টেট’। নতুন রাষ্ট্রের ব্যাপ্তি, বিস্তৃতি বা সীমানা হবে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আলেপ্পো থেকে ইরাকেরপূর্বাঞ্চলীয় দিয়ালা প্রদেশ পর্যন্ত। আইএসআইএস’র ঘোষণায় বলা হয়েছে, বিদ্রোহী সংগঠনটির নেতা আবু বকর আল-বাগদাদি খলিফার দায়িত্ব পালন করবেন।তিনি ‘খলিফা ইব্রাহিম’ নামে পরিচিতি পাবেন। ওই অডিও বার্তায় ‘সর্বত্রমুসলমানদের নেতা’ হিসেবেও ঘোষণা করা হয় তাকে। খেলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাকট্টরপন্থীদের বহুদিনের লক্ষ্য ছিলো। অপর এক খবরে বলা হচ্ছে, ইরাকের বহুঅংশে সুন্নি বিদ্রোহীদের অগ্রসর ও দখল প্রতিষ্ঠার খবরে ইসরাইল স্বাধীনকুর্দি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছে। এদিকে ইরাকি সেনাবাহিনীআইএসআইএস’র দখলে থাকা উত্তরাঞ্চলীয় তিকরিত শহরে নিয়ন্ত্রণ পুনর্প্রতিষ্ঠারজন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে। গত ১১ জুন বিদ্রোহীরা শহরটিতে নিজেদেরনিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে। এ সময় দেশটির উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলের বিস্তীর্ণঅঞ্চলে হামলা চালিয়ে সেখানে দখল প্রতিষ্ঠা করে আইএসএস।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *