ইবিতে দুই শিবিরকর্মীকে মারধর করে পুলিশে সোপর্দ

 

ইবি প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) দুই শিবিরকর্মীকে মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করেছে ছাত্রলীগ। গতকাল রোববার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাদ্দাম হোসেন হলে এ ঘটনা ঘটে। পরে হল তল্লাশি চালিয়ে চাপাতি, গানপাউডার, স্ট্যাম্প, রড এবং হকিস্টিক উদ্ধার করে পুলিশ প্রশাসন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শামীম ওসমান নামে এক শিবিরকর্মী নাশকতার উদ্দেশে সাদ্দাম হোসেন হলে অবস্থান করছে এমন সংবাদ পেয়ে হলের সামনে অবস্থান নেন ছাত্রলীগ কর্মীরা। বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে শামীম উসমানকে হলের সামনে পেয়ে মারধর করে ছাত্রলীগ। মারধরের একপর্যায়ে সে পালিয়ে যায়। পরে হলের সামনে আরও দুইজন শিবিরকর্মীকে মারধর করে ছাত্রলীগ। মারধর শেষে তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, হল প্রশাসন এবং পুলিশ প্রশাসন হলের বেশ কয়েকটি রুমে তল্লাশি চালিয়ে চাপাতি, ৪টি স্ট্যাম্প, ২টি রড এবং একটি হকিস্টিক উদ্ধার করে। সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত তল্লাশি চলে। পুলিশের কাছে সোপর্দকৃতরা হলেন- কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০০৯-১০ শিক্ষাবর্ষের হাসনাত হোসাইন এবং আল-হাদিস বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের গোলাম আজম।

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বলেন, তথ্যের ভিত্তিতে সাদ্দাম হোসেন হলের ওই রুমটি তল্লাশি করা হয়। রুম থেকে কিছু অবৈধ জিনিস উদ্ধার করা হয়েছে এবং বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে দুজনকে পুলিশে দেয়া হয়েছে।

ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন শেখ বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে দুই ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। এখন তারা পুলিশ হেফাজতে আছে। এছাড়া হলের কয়েকটি রুমে তল্লাশি চালিয়ে চাপাতি, হকিস্টিক, রড, স্ট্যাম্প উদ্ধার করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.