আলমডাঙ্গায় জামাইকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগে শাশুড়ি ও স্ত্রী গ্রেফতার

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: জামাইকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগে আলমডাঙ্গা রংপুরের শাশুড়ি ও স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ। লিখিত অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার সোনাতনপুর গ্রামের বজলু মুন্সির ছেলে ইমরান মুন্সি প্রায় ৫ বছর আগে পার্শ্ববর্তী রংপুর গ্রামের ইউনুস আলীর মেয়ে রীমা খাতুনকে বিয়ে করেন। বর্তমানে তাদের দেড় বছরের এক সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি রীমা খাতুনের মা-বাবা জামাই ইমরান মুন্সির বাড়িতে বেড়াতে যান। এরই মধ্যে গত মঙ্গলবার ইমরান মুন্সি ও রীমা খাতুনের ঝগড়া বাধে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে জামাই ইমরান মুন্সিকে স্ত্রী রীমা খাতুন, শ্বশুর ও শাশুড়ি মিলে মারধর করেন। সে সময় স্ত্রী রীমা খাতুন ও তার মা চায়না খাতুন ধারাল হেঁসো দিয়ে কুপিয়ে জামাইকে রক্তাক্ত জখম করে বলে ইমরান মুন্সি এজাহার করেন। এ ঘটনায় ইমরান মুন্সি ৩ অক্টোবর বিকেলে আলমডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এসআই আফজাল হোসেন রংপুর গ্রাম থেকে মামলার আসামি স্ত্রী রীমা খাতুন ও তার মা চায়না খাতুনকে গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতার হওয়া রীমা খাতুন জানিয়েছেন, ইমরান মুন্সি তার শ্বশুর-শাশুড়ির নিকট ১০ হাজার টাকা চেয়েছিলেন। কিন্তু শ্বশুর-শাশুড়ি টাকা ছাড়াই জামাই-মেয়ের বাড়ি বেড়াতে যান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জামাই ইমরান মুন্সি স্ত্রীকে গালাগালি করেন। সে সময় তাদের হাতাহাতি হয়। হাতাহাতির এক পর্যায়ে ইমরান মুন্সি পড়ে গেলে টিনে তার হাত কেটে যায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *