আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জে শাশুড়ির পিটুনিতে হাসপাতালে পুত্রবধূ

স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জে শাশুড়ির পিটুনিতে হাসপাতালে পুত্রবধূ তৃপ্তি খাতুন (৩০)। গতপরশু দুপুরে বাড়ির উঠোনে ধান ঝাড়ার সময় ধানের চিটা ঘরে যাওয়াকে কেন্দ্র করে শাশুড়ি তার পুত্রবধূকে পিটিয়ে আহত করেই থেমে থাকেনি। অজ্ঞান অবস্থায় তাকে ঘরে আটকে রেখে মেরে ফেলার চেষ্টাও করে। আহত তৃপ্তি খাতুন আলমডাঙ্গা মুন্সিগঞ্জের খুদিয়াখালী ঈদগাপাড়ার রফিকুল ইসলামের স্ত্রী ও কেষ্টপুর মসজিদপাড়ার গনি মণ্ডলের মেয়ে। আহত তৃপ্তি খাতুন অভিযোগ করে বলেন, গতপরশু রোববার দুপুরে বাড়ির উঠোনে ধান ঝাড়ছিলো। ধানের চিটা তার শাশুড়ি মর্জিনা বেগমের ঘরে যায়। এতে মর্জিনা বেগম রাগে তৃপ্তিকে গালাগাল করতে থাকে। তৃপ্তি প্রতিবাদ করায় তার চুল ধরে টান দিয়ে মাটিতে আছড়ে ফেলে দিয়ে লাথি ও কিলঘুষি মারতে থাকে। তৃপ্তি খাতুন অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে ঘরের ভেতর আটকে রাখে তার শাশুড়ি মর্জিনা বেগম। প্রতিবেশীরা তৃপ্তি খাতুনের পরিবারের লোকজনের খবর দেয়। তারা এসে তৃপ্তিকে উদ্ধার করে ওইদিন রাতেই চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চারঘণ্টা পর তৃপ্তি খাতুনের জ্ঞান ফেরে। আহত তৃপ্তি খাতুন আরও বলেন, গত নয় মাস আগে তার শাশুড়ি সংসারের কাজ নিয়ে তাকে মেরে তার বাঁ হাত ভেঙে দিয়েছিলো। এ ব্যাপারে তৃপ্তি খাতুনের স্বামী রফিকুল ইসলামের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমার স্ত্রীর কিছুই হয়নি। সে তার বাপের বাড়িতে বেড়াতে গেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *