আলমডাঙ্গার পোলতাডাঙ্গা-আঠারখাদা সড়কে সন্ধ্যারাতে ছিনতাইকারীদের তাণ্ডব

ছিনতাই : প্রতিরোধের মুখে মোটরসাইকেল ও পিস্তল ফেলে পলায়ন

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: গ্রামবাসীর তাড়া খেয়ে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে গেলেও তাদের মোটরসাইকেল ও ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত একটি পিস্তল ফেলে গেছে। তবে ছিনতাইকারীরা নগদ ৫০ হাজার টাকা দুটি মোবাইলফোন ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়েছে। ফেলে যাওয়া মোটরসাইকেলটি মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার বেড় গ্রামের খোকনের বলে পুলিশ জানিয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় এ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীসূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার বাড়াদী ইউনিয়নের অনুপনগর গ্রামের সোনা মোল্লার ছেলে মোমিন পোলতাডাঙ্গা বাজারে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তার জামাইয়ের কাছ থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে নিজগ্রামে ফিরছিলেন। পোলতাডাঙ্গা-আঠারখাদা মাঠের ভেতর পৌঁছুলে একটি মোটরসাইকেলযোগে তিনজন ছিনতাইকারী তার পথরোধ এবং মারধর করে ৫০ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইলফোন ছিনিয়ে নিয়ে পোলতাডাঙ্গার দিকে চলে যায়। ছিনতাইকারীরা পোলতাডাঙ্গার হাসান ও শিপনের কাছ থেকেও ছিনতাই করে। ছিনতাইয়ের শিকার মোমিন আঠারখাদা গ্রামে ছুটে গিয়ে ফুফাত ভাই পোলতাডাঙ্গার ছাত্তার জোয়ার্দ্দারের ছেলে রায়হানের কাছে অন্যের মোবাইলফোন থেকে বিষয়টি জানান। রায়হান খবর পাওয়ার সাথে সাথে গ্রামের কিছু ব্যক্তি নিয়ে পোলতাডাঙ্গা হাইস্কুলের কাছে প্রতিরোধ গড়ে দাঁড়ান। এ সময় মোটরসাইকেলযোগে আসা তিন ছিনতাইকারী তাদের মোটরসাইকেল ও একটি পিস্তল ফেলে মাঠের ভেতর পালিয়ে যায়। পরে দুর্লভপুর ফাঁড়ি পুলিশ এসে মোটরসাইকেল ও পিস্তলটি উদ্ধার করে। তবে পুলিশ বলেছে পিস্তলটি খেলনা পিস্তল। মোটরসাইকেলের নেমপ্লেটে ন্যাশনাল মোটর লেখা আছে। পুলিশ জানায়, খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মোটরসাইকেলটি গাংনী উপজেলার বেড় গ্রামের খোকনের।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *