আলমডাঙ্গার পাইকপাড়া গ্রামের ৪ সন্তানের জননীর ট্রেনে কেটে মৃত্যু : মাথার অসুখের কারণে আত্মহত্যা করেছে বলে পরিবার দাবি করলেও চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্রে তার সত্যতা মেলেনি

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গায় ৪ সন্তানের জননী আনজিরা খাতুন ট্রেনে কেটে নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে জগন্নাথপুর গ্রামের নিকটবর্তী রেললাইনের ওপর খুলনা থেকে ছেড়ে আসা মালবাহী ট্রেনে কাটা পড়ে তার মৃত্যু হয়।

জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে আলমডাঙ্গা উপজেলার কালিদাসপুর ইউনিয়নরে পাইকপাড়া গ্রামের মোল্লাপাড়ার আজিজুল হকের স্ত্রী চার সন্তানের জননী আনজিরা খাতুন জগন্নাথপুর গ্রামের নিকটবর্তী রেললাইনের ওপর ট্রেনে কেটে নিহত হন। খুলনা থেকে ছেড়ে আসা মালবাহী ট্রেনে কাটা পড়ে তার মৃত্যু হয়। তার আত্মীয়স্বজন ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে পোড়াদহ জিআরপি থানা পুলিশ ছুটে যায়। গ্রামবাসীর অনুরোধে ময়নাতদন্ত না করেই জিআরপি পুলিশ লাশ দাফনের অনুমতি দিয়েছে বলে আনজিরা খাতুনের আত্মীয় ও গ্রামবাসীর অনেকে জানিয়েছেন। আনজিরা খাতুনের লাশ জানাজা শেষে রাত ৮টার দিকে গ্রামের গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে। মাথার অসুখের কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হলেও তার সত্যতা মেলেনি। তবে গ্রামবাসীর অনেকে জানিয়েছে আনজিরা দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎধীন ছিলো। ওই ঘটনায় পোড়াদহ রেলওয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

ছবি: ট্রেনে কেঁটে মারা যাওয়া আনজিরা

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *