আলমডাঙ্গার তিয়রবিলা গ্রামে দুই সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার পল্লি তিয়রবিলা গ্রামে ২ সন্তানের জননী আম্বিয়া খাতুনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। রাতের আঁধারে গলায় ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে পরিবারের সদস্যরা দাবি করলেও পুলিশ বলেছে, মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ আছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে বাড়ির পাশের আশরাফুলের পুকুর ধারের একটি কাঁঠাল গাছে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় আম্বিয়াকে দেখা যায়। তাকে অর্ধেক ঝুলন্ত বসা অবস্থায় দেখতে পায় প্রতিবেশীরা। এতেই আত্মহত্যা না হত্যা তা নিয়ে সন্দেহ হয় পুলিশের। পরে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়।

জানা গেছে, উপজেলার পল্লী তিয়রবিলা গ্রামের আমিরুলের স্ত্রী ২ সন্তানের জননী আম্বিয়া খাতুনের (৪২) পরিবারের সদস্যরা বলেছেন আম্বিয়া দীর্ঘদিন পেটের পীড়ায় ভুগছিলেন। তিনি আত্মহত্যা করেছেন। ভোর ৫টার দিকে মেয়ে রহিমা তার মাকে বিছানায় না পেয়ে ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ডাক দেয়। পরে তারা খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে প্রতিবেশী আশাদুলের পুকুর ধারে একটি কাঠাল গাছে আম্বিয়ার গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলতে দেখে। দুপুরে আলমডাঙ্গা থানায় আম্বিয়ার ছেলে আব্দুল্লাহ আল মামুন অপমৃত্যুর অভিযোগ করেন। পরে আলমডাঙ্গা থানার এসআই কামরুজ্জামান লাশের সুরতহাল রিপোর্ট সম্পন্ন করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে চুয়াডাঙ্গায় পাঠান। আজ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে ময়না তদন্ত শেষে নিজ গ্রাম তিয়রবিলা নিয়ে দাফন করা হবে বলে জানা গেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *