আলমডাঙ্গার চিলাভালকি গ্রামে কৃষকের বাড়িতে সশস্ত্র হামলার অভিযোগ

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি/ঘোলদাড়ী প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার নাগদাহ ইউনিয়নের চিলাভালকি গ্রামে গভীর রাতে এক কৃষকের বাড়িতে ডাকাত দল হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে লুটপাট, কুপিয়ে জখম ও বোমা নিক্ষেপ করা হয় বলে জানিয়েছেন তারা। ধারালো দায়ের কোপে আহত একজনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হামলার অভিযোগ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে মতপার্থক্য রয়েছে।

অভিযোগে জানা গেছে, আলমডাঙ্গার চিলাভালকি গ্রামের রাহাজ উদ্দিনের ছেলে সাগর পরিবার নিয়ে বাড়িতে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিলো। গতপরশু সোমবার রাত ২টার দিকে ১০-১২ জনের একদল ডাকাত বাড়িতে হামলা চালায়। অস্ত্রের মুখে পরিবারের সবাইকে জিম্মি করে বাড়িতে থাকা জমির দলিল, নগদ ৫০ হাজার টাকা ও মারধর করতে থাকে। এ সময় তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে সাগরকে। বাড়ির উঠোনে থাকা ধানের গোলাই পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয়ার চেষ্টা করে। সাগর ও তার পরিবারের লোকজনের চিৎকারে গ্রামবাসী ছুটে গেলে একটি বোমা নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায় ডাকাতদল। ডাকাতদলের ছুড়ে ফেলা বোমা বিস্ফোরণ না হলেও পরিবারের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ায়। রাতে সাগরকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সংবাদ পেয়ে ঘোলদাড়ী ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায় ও একটি বোমা উদ্বার করে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) লুৎফুন কবীর ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের বলেন, গ্রামের একটি পক্ষের সাথে জমি জায়গা, ঈদগা ও মসজিদের রাস্তা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। ঘটনার আড়ালে অন্য কোনো ঘটনা লুকিয়ে আছে কি-না তা তদন্তপূর্বক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গ্রামবাসী জানায়,  গ্রামের দুটি পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ঈদগার জমি ও মসজিদের রাস্তা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *