আলমডাঙ্গার ঘোলদাড়ি বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্য : প্রতিরোধ কমিটি গঠন : শূন্য পদে ইংরেজী শিক্ষক চাই দাবিতে স্লোগান শিক্ষার্থীদের

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি/ ঘোলদাড়ি প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার ঘোলদাড়ি বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটিকে ম্যানেজ করে প্রধান শিক্ষক ৮ লাখ টাকা অর্থ বাণিজ্যের বিনিময়ে শিক্ষক নিয়োগ দেয়ায় স্কুল প্রাঙ্গণ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। স্কুলের সহকারী শিক্ষকদের কর্ম বিরতির পর অবৈধ নিয়োগ বাণিজ্য প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হয়েছে। নেয়া হচ্ছে নতুন কর্মসূচি।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা ঘোলদাড়ি বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৮ লাখ টাকা অর্থ বাণিজ্যের বিনিময়ে বাণিজ্য শিক্ষা শিক্ষক নিয়োগ দেয়ায় স্কুল প্রাঙ্গণ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। স্কুলের সহকারী শিক্ষকদের কর্মবিরতির পর অবৈধ নিয়োগ বাণিজ্য প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে গত ২৩ জানুয়ারি বিকেল ৪ টার দিকে অত্র স্কুলের শিক্ষক প্রতিনিধি সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অবৈধ নিয়োগ বাণিজ্য প্রতিরোধ কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সহকারী প্রতিষ্ঠাতা শিক্ষক হাফিজুর রহমানকে কমিটির মুখপাত্র ও মশিরুর রহমানকে সমন্বয়কারী করে ১২ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি শেষে ব্যাপক আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয় ইংরেজী শিক্ষকের শূন্য পদে ইংরেজী শিক্ষক চাই এক দফা এক দাবি, সৃষ্ট সমস্যার সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সমস্ত শিক্ষক ঐক্যবদ্ধ থাকবে, সমস্যার কথা শিক্ষার্থীদের অবহিত করা হবে। সমস্যা সমাধানকল্পে শিক্ষদের কর্মবিরতি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিবাবক সমন্বয়ে মানববন্ধন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অবহিত করণ, আইনের আশ্রয় গ্রহণ।
উল্লেখ্য, গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৪ইং সালে অত্র স্কুলের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক আব্দুল্লাহ আল মামুন মৃত্যুবরণ করেন। যে কারণে ইংরেজী শিক্ষকের পদ খালি হয়ে যায়। গত ১৩ নভেম্বর স্থানীয় পত্রিকায় ইংরেজী ও ব্যবসায়ী শিক্ষক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় স্কুল কর্তৃপক্ষ। ২৮ নভেম্বর আবেদনের শেষ তারিখ উল্লেখ করা হয় বিজ্ঞপ্তিতে। ২৮ তারিখ আবেদনের শেষ তারিখ থাকলেও প্রধান শিক্ষক ম্যানেজিং কমিটিকে ম্যানেজ করে ৮ লাখ টাকার বিনিময়ে ২২ নভেম্বর শিমুল হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে ব্যণিজ্য শিক্ষা বিষয়ে নিয়োগ দেন। ২৮ তারিখে আবেদনের শেষ তারিখ হলেও ২২ তারিখ একজন শিক্ষক নিয়োগ দেখানো হয়। ৩ ডিসেম্বর নতুন শিক্ষক স্কুলে যোগদান করেন। স্কুলের ১২ জন শিক্ষক এই নিয়োগ বাণিজ্যে টাকার বিনিময়ে অবৈধ ভাবে দেয়া বলে অভিযোগ করতে থাকেন। প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন প্রভাবশালীদের দারস্ত হয়ে সহকারী শিক্ষকদের বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিতে থাকেন। উপায় না পেয়ে গত রোববার স্কুলে কর্মবিরতি করেন সহকারী শিক্ষকবৃন্দ। এব্যাপারে এলাকার অভিভাবকদের অনেকেই জানান, অত্র স্কুলে প্রধান শিক্ষকের কারণে স্কুলের শিক্ষকরা ক্লাস নেয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। এতে শিক্ষার্থীদের অপূরনীয় ক্ষতি হচ্ছে। এলাকাবাসী তদন্ত পূর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *