আলমডাঙ্গার গোবিন্দপুর মাঠপাড়ার প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি ঘটনার নায়ক বোরহান আটক

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার গোবিন্দপুর মাঠপাড়ায় মালয়েশিয়া প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি প্রচেষ্টায় জড়িত ডাকাতসর্দার বোরহানকে (২২) গতপরশু ভোররাতে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গত শুক্রবার ডাকাতিকালে দু ডাকাতকে পাকড়াও করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে পরিবারের লোকজন।

জানা গেছে, গত শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আলমডাঙ্গার গোবিন্দপুর মাঠপাড়ার আনসার আলীর মালয়েশিয়া প্রবাসী ছেলে খাইরুল ইসলামের বাড়িতে ৫/৬ জনের একটি সশস্ত্র ডাকাতদল প্রবেশ করে। বাড়িতে প্রবেশের পর ডাকাতির চেষ্টাকালে বাড়ির সকল সদস্য সাহস করে একসাথে বের হয়ে আসেন। চিৎকার চেঁচামেচি করে ডাকাতদলকে মোকাবেলার চেষ্টা করেন। মুহূর্তেই হই-হুল্লোড় করে ছুটে আসতে থাকে প্রতিবেশীরা। নিজেদের বাঁচাতে ডাকাতদল পালিয়ে যেতে উদ্যত হলে পরিবারের লোকজন সাহস দেখিয়ে তাদের দুজনকে ধরে ফেলেন। তারা হলো- পারদুর্গাপুরের মৃত আশরাফুলের ছেলে শিপন আলী (১৮) ও বণ্ডবিল গ্রামের উত্তরপাড়ার আমির হোসেনের ছেলে আরিফ হোসেন (২৩)। ওই সময় অন্যরা পালিয়ে যায়। বিষয়টি আলমডাঙ্গা থানা পুলিশকে জানানো হলে থানার ওসি (তদন্ত) নাজমুল হক, সেকেন্ড অফিসার লুতফুল কবীর, এসআই আনিস, এসআই সিরাজ ও এএসআই মেজবাহ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছান। পরে পুলিশ আটককৃত দুজনকে থানায় নিয়ে যায়। আটকের পর রাতে জিজ্ঞাসাবাদে তারা ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। গতকালই তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অন্যদিকে ওই রাতেই ভোরের দিকে ডাকাতদলের নেতা কুষ্টিয়া জেলার ইবি থানার গোস্বামী দুর্গাপুরের খেদ আলীর ছেলে বোরহান আলীকে ফরিদপুর ইটভাটার পাহারাদাররা আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। ডাকাতিকালে প্রবাসীর বাড়ি থেকে পালিয়ে বোরহান আলী বিভিন্ন এলাকা ঘুরে কাঁদামাটি গায়ে মাখা অবস্থায় ফরিদপুরে পৌঁছুলে ইটভাটার পাহারাদারেরা তাকে সন্দেহজনক অবস্থায় আটক করে। পরে পুলিশকে জানালে এসআই আনিস ও এসআই টিপু সুলতান তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যান। তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *