আলমডাঙ্গার খুদিয়াখালীর তৌহিদুলের বিরুদ্ধে এবার খুনের হুমকির অভিযোগ : ১৩ জনের নামে মামলা

স্টাফ রির্পোটার: আলমডাঙ্গার খুদিয়াখালীর তৌহিদুল জেল থেকে বেরিয়ে ৫ জনকে কুপিয়ে জখম করে ক্ষান্ত হননি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আলামিনের পরিবারকে মামলা না করার ভয় দেখিয়ে খুনের হুমকি অব্যাহত রেখেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। হুমকিতে সংকিত পবিরার বাড়িতে ফিরতে পারছে না। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার ১৩ জনকে আসামি করে আলমডাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করেছেন আলামিনের মা আকলিমা বেগম।
অভিযোগে জানা গেছে, আলমডাঙ্গার জেহালার খুদিয়াখালী গ্রামের ফজলু, আইজাল ও তৌহিদুলের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন ময়নালের ছেলে আলামিন। সেই মামলায় গ্রেফতারকৃত ফজলুর ছেলে তৌহিদুল চুয়াডাঙ্গা জেলাহাজত থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে বাড়িতে ফেরেন। বাড়িতে ফিরেই ধারালো দা হাতে আলামিনের পরিবারকে খুঁজতে থাকে। ঘটনার দিন আলামিনের ছোট ভাই ইয়ামিন চুয়াডাঙ্গা থেকে ফুটবল খেলা দেখে বাড়িতে ফেরার পথে বাড়ির সামনের মসজিদের পাশে চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা সড়কের ওপর ফেলে তৌহিদুল ও তার লোকজন তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এ সময় আলামিন ও তার মা আকলিমা, স্ত্রী ইরানি, বোন সোনালি বাধা দিতে গেলে তাদের ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়। তাদের উদ্ধার করে গ্রামবাসী চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তৌহিদুল এবং তার পিতা ফজলু ও আইজাল নাটক সাজিয়ে মাথায় বেন্ডেস করে হাসপাতালে ভর্তি না হয়ে হাসপাতালে অবস্থান করে। আলামিনকে মামলা না করতে খুনের হুমকি দিতে থাকে। গতপরশু রাতে গ্রামবাসী সালিসের আয়োজন করে। গ্রামে ফজলুর পরিবারকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে। এছাড়া ফজলু ও আইজালের বোন চুয়াডাঙ্গা পৌর সভার সাবেক কমিশনার জাহানারা ও তার স্বামীকে গ্রামে দেখা মাত্র ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়ার অঙ্গিকার করে।
গতকাল আলামিনের মা আকলিমা বাদী হয়ে আলমডাঙ্গা থানায় খুদিয়াখালী গ্রামের মৃত রমজান কাজীর ছেলে ফজলু ও আইজাল, ফজলুর ছেলে তৌহিদুল ও ফরজ, স্ত্রী আমিরন, মেয়ে আয়েশা, আইজালের ছেলে আব্দুল, মেয়ে খদেজা, তৌহিদুলের স্ত্রী মহুয়া, ফরজের স্ত্রী নাজেরা, চুয়াডাঙ্গা নূরনগর কলোনির জাহানারা ও তার স্বামী খোকন, ফজলুর ঘর জামাই সানোয়ারকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *