আলমডাঙ্গার খাসকররা এলাকায় একের পর এক ডাকাতি চাঁদাবাজি : জেগে উঠেছে এলাকাবাসী

0
35

 

মাঠে গোপন বৈঠক : তাড়িয়ে দুজনকে পিটিয়েছে পারলক্ষ্মীপুরের জনতা

স্টাফ রিপোর্টার: মাঠে বসে গোপন বৈঠক করার সময় আলমডাঙ্গার পারলক্ষ্মীপুর গ্রামবাসী হাকিমপুরের দুজনকে তাড়িয়ে ধরেছে। গতরাত পোনে ‌১২টার দিকে পারলক্ষ্মীপুরের মাঠ থেকে এদেরকে ধরা হলেও তাদর ১০/১২ জন সঙ্গী সটকে পড়ে।

পারলক্ষ্মীপুর গ্রামবাসী দুজনকে ধরে উত্তমমধ্যমের পর খাসকররা ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রুন্নুর বাড়ির সামনে বেধে রাখে। পরে পুলিশে খবর দেয়া হয়। আটককৃতরা হলো, আলমডাঙ্গার হাকিমপুর গ্রামের ইউসুব আলীর ছেলে রুবেল ও একই গ্রামের চান্দা আলীর ছেলে হাসিবুল। এরা এলাকার অস্ত্রধারী গ্যাং আব্বাস বাহিনীর সক্রিয় সদস্য বলে অভিযোগ তুলেছে পারলক্ষ্মীপুরের জনতা।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, গতরাত ১১টার দিকে পারলক্ষ্মীপুর গ্রাম সংলগ্ন মাঠে ১৪/১৫ জনের একদল গোপন বৈঠক করছে বলে গ্রামবাসী খবর পায়। এলাকায় একের পর এক ডাকাতি, বোমাবাজি অপহরণের ঘটনা ঘটেই চলেছে। এরকম পরিস্থিতিতে গ্রাম সংলগ্ন মাঠে রাতে অজ্ঞাত পরিচয়ের একদল ব্যক্তির অবস্থানের খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে গ্রামবাসী মুহূর্তের মধ্যেই সংগঠিত হয়ে মাঠে ধাওয়া করে। ১০/১২ জন দৌঁড়ে পালালেও হাতেনাতে ধরা পড়ে রুবেল ও হাসিবুল। দুজনকেই পারলক্ষ্মীপুর গ্রামে নিয়ে উত্তমমধ্যম দেয়া হয়। পরে বেধে রেখে পুলিশে খবর দেয়া হয়। গতরাত ১টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত গ্রামবাসীর হেফাজতেই ছিলো আটক দুজন।

মধ্যরাতে স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছে, পুলিশ তো এলাকার দাগি সন্ত্রাসীদের ধরছেই না, আবার ধরে দিলেও পুলিশ তড়িঘড়ি করে এসে নিচ্ছে না। পুলিশের বিলম্বের সুযোগে সন্ত্রাসীরা নানাভাবে গ্রামের বেশ কয়েকজনসহ জনপ্রতিনিধিকে হুমকি ধামকি দিয়ে আটক দুজনকে ছেড়ে দেয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে বলেও জানিয়েছেন তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here