আলমডাঙ্গার কাবিলনগর গ্রামের বিল্লাল গনির বাড়ির সামনে থেকে ৪টি ডামি বোমা ও চিঠি উদ্ধার

আলমডাঙ্গা ব্যুরো : আলমডাঙ্গার কাবিলনগর গ্রামের বিল্লাল গনির বাড়ির সামনে থেকে পুলিশ লাল টেপ জড়ানো ৪টি ডামি বোমা ও একটি চিঠি উদ্ধার করেছে। তিয়রবিলা ফাঁড়ি পুলিশ গতকাল মঙ্গলবার সকালে এগুলি উদ্ধার করে।

জানা গেছে, গতকাল সকালে কাবিলনগর গ্রামের দক্ষিণপাড়ার মৃত নুর বক্স বিশ্বাসের ছেলে বিল্লাল গনি ঘুম থেকে উঠে তার বাড়ির সামনে লাল টেপ দিয়ে জড়ানো ৪টি বোমাসদৃশ বস্তু ও একটি চিঠি পড়ে থাকতে দেখে তিয়রবিলা ফাঁড়ি পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে তিয়রবিলা ফাঁড়ি পুলিশের আইসি আছের আলী ঘটনাস্থল থেকে বোমাসদৃশ বস্তু ও চিঠিটি উদ্ধার করে আলমডাঙ্গা থানায় নিয়ে আসেন। বোমাসদৃশ বস্তুগুলো পানিতে ভিজিয়ে রেখে সন্ধ্যায় আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ সেগুলো খুলে দেখে লাল টেপে জড়ানো জর্দা ও ওষুধের কৌটায় শুধুমাত্র বালি ভরে রাখা হয়েছিলো। ভুল বানানে ভরা উদ্ধারকৃত চিঠিটিতে লেখা রয়েছে, ‘‌‌বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম। নারায়ের তাকবির, আল্লাহু আকবর। কোরআনের আলো ঘরে ঘরে জ্বালো। বিল্লাল গনি আপনি মাদ্রাসায় ভোট হতে দেবে না। জামায়াত শিবিরের কোন ছেলে যদি গ্রেফতার হয়, তা হলে তুমি বিল্লাল আপনি কোন জীবন নিয়ে এই বাংলার মাটিতে থাকতে পারো না। একবারে খতম। তোর রগ কাটা হবে। পায়ের রগ কাটা পড়বে। ইতি শিবির কর্মী।’ চিঠির অপর পাতায় উল্লেখ করা হয়েছে যে, “রবিউল হক হরিণকুন্ডু মেয়রের ভাইরাভাই। তোর যেখানে পাইবো তোর এবং লালু ও বিল্লাল লিডার এই ৩ জন মারা পড়বে। অতি শীঘ্র হাত পার রগ কাটা পড়বে। প্রচারে ছাত্রশিবির।”

ভুল বানান ও বাক্যে ভরা এই চিঠি ও ডামি বোমা উদ্ধারের ঘটনাকে গ্রামের অনেকেই সাজানো নাটক বলে ধারণা করছে। এ বিষয়ে আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্য করা সম্ভব নয়। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *