আলমডাঙ্গার আনন্দধামের বীজব্যবসায়ীর বাড়ির গেটের ওপর থেকে ডেমি বোমা উদ্ধার

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার আনন্দধামের বীজব্যবসায়ী সুরত আলী মেম্বারের বাড়ির গেটের ওপর থেকে আবারও ডেমি বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। গত প্রায় ৪ মাস আগে চাঁদার দাবিতে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা তার বাড়ির পাঁচিলের ওপর একটি বোমা রেখে গিয়েছিলো।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার কেদারনগর গ্রামের মৃত আবুল ফারায়েজির ছেলে সুরত আলী মেম্বার গত প্রায় ১০ বছর ধরে আলমডাঙ্গা শহরের আনন্দধাম এলাকায় বসবাস করে আসছেন। তিনি বীজ ব্যবসায়ী। গত শনিবার রাতে অজ্ঞাত চাঁদাবাজরা তার বাড়ির গেটের ওপরে একটি বোমা সাদৃশ বস্তু রেখে যায়। বিষয়টি টের পেয়ে পরিবারের লোকজন থানা পুলিশকে জানায়। সংবাদ পেয়ে গতকাল সকালে আলমডাঙ্গা থানার এসআই পিয়ার আলী ঘটনাস্থলে গিয়ে বোমা সদৃশ বস্তুটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। থানায় নিয়ে বোমা সদৃশ বস্তুটি কিছু সময় পানিতে ডুবিয়ে রাখার পর থানা পুলিশ খুলে তার ভেতর কোনো বিস্ফোরক পায়নি বলে জানিয়েছেন। তবে লোহার টুকরো, ইটের টুকরো ও বালি ভর্তি ছিলো বলে জানানো হয়েছে।

গত প্রায় ৪ মাস আগে সুরত আলী মেম্বারের বাড়ির পেছনের পাঁচিলের ওপর অজ্ঞাত চাঁদাবাজরা দুটি বোমা সাদৃশ বস্তু রেখে যায়। সে সময় পুলিশ ওই বোমা সাদৃশ বস্তু দুটি উদ্ধার করেছিলো।

এ দফায় চাঁদা দাবি না করলেও ৪ মাস আগে বাড়ির পাঁচিলের ওপর বোমা রেখে যাওয়ার আগে মোবাইলফোনে সুরত আলী মেম্বারের নিকট চাঁদা দাবি করা হয়েছিলো বলে তিনি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মহল্লায় কিংবা ব্যবসা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে তার কারও সাথে কোনো শত্রুতা নেই। তারপরও বাড়িতে কেন বোমা রাখার ঘটনা ঘটছে সে সম্পর্কে তিনি কোনো ধারণা দিতে পারেননি। তবে তার বোন সুফিয়া খাতুন আলমডাঙ্গা পৌরসভার ওই এলাকার কাউন্সিলর। সামনের নির্বাচনে পাড়ার অনেকে তার প্রতিদ্বন্দ্বি হতে চাচ্ছে। সে ব্যাপারে তাকে ভয়ভীতি দেখাতে কেউ ডেমি বোমা রেখে যেতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *