আন্দোলন জোর দিন : খালেদা জিয়া

স্টাফ রিপোর্টার: গুলশানের নিজ কার্যালয়ে ১৫ দিন ধরে অবরুদ্ধ আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলনের কর্মসূচি থেকে পিছু হটবে না বিএনপি। গতকাল শনিবার রাতে কার্যালয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ শেষে স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার দলের এ অবস্থানের কথা জানান। রাত সাড়ে ৭টায় এমকে আনোয়ার দলীয় প্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। সেখান থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা হয়েছে। উনি অনেকটা সুস্থ। তার মনোবল আগের চেয়ে অনেক দৃঢ়। উনার একটাই কথা- অবৈধ সরকার জনগণের ভোটের অধিকার হরণ করেছে। মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে না দেয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। এ আন্দোলন থেকে পিছিয়ে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আন্দোলন আরও জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক, ৱ্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদের রংপুরে দেয়া বক্তব্যের প্রতি ইঙ্গিত করে এমকে আনোয়ার বলেন, এটা খুবই দুঃখজনক যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কতিপয় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ইদানীং রাজনীতিবিদদের মতো কথা বলেছেন। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হয়ে তারা যে ভাষায় বক্তব্য দিচ্ছেন, জনগণকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছেন, এটা কাম্য নয়। আমি তাদের বলবো, রাজনীতি করার খায়েশ থাকলে উর্দি-পোশাক ছেড়ে জনগণের কাতারে এসে রাজনীতি করুন।

১৯ জানুয়ারি শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জন্মদিনে দলের কর্মসূচি আছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আপনারা জানেন দেশনেত্রীকে কিভাবে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এরকম অবস্থায় কর্মসূচিও কার্যত অবরুদ্ধ। তবে দিবসটি উপলক্ষে কিছু অনুষ্ঠান করা হবে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, যথাসময়ে তা জানানো হবে।

এখনও কার্যালয়ের মূল ফটকের উত্তর পাশে পুলিশের পিকআপ ভ্যান ও দক্ষিণ পাশে জলকামান আড়াআড়িভাবে রেখে বন্ধ করা হয়েছে ৮৬ নম্বর সড়কটি। মেইন গেটের সামনে দু স্তরের পুলিশি নিরাপত্তা বহাল রয়েছে। কার্যালয়ের চারপাশে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোকের উপস্থিতিও রয়েছে আগের মতো। এদিকে অবরুদ্ধ থাকায় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয়পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে পারছেন না খালেদা জিয়া। তার পক্ষ থেকে বিএনপির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার জানান, তার (খালেদা জিয়া) পক্ষ থেকে আখেরি মোনাজাতে দেশবাসী ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মোনাজাত করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

অ্যাবের ১৫ সদস্যকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি: অ্যাগ্রিকালচারিস্ট অ্যাসোসিয়শন অব বাংলাদেশের (অ্যাব) ১৫ সদস্যদের একটি দল গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে যায়। তাদের নেতৃত্বে ছিলেন অ্যাব আহ্বায়ক কৃষিবিদ আনোয়ারুন নবী মজুমদার বাবলা ও সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন। তারা কার্যালয়ে প্রবেশ করতে চাইলে পুলিশ নিরাপত্তার অজুহাতে তাদের প্রবেশ করতে দেয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *