আন্দুলবাড়িয়া-সরোজগঞ্জ সড়কে চিহ্নিত ছিনতাই স্পটে ফের ছিনতাই

আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি: জীবননগরের আন্দুলবাড়িয়া-সরোজগঞ্জ সড়কে বেলতলা রেলগেটের অদূরে চিহ্নিত ছিনতাই স্পটে ফের ছিনতাই সংঘটিত হয়েছে। গত মঙ্গলবার ভোরে ছিনতাইকারী দল সড়ক পথে কলাগাছ ফেলে টমেটো ভর্তি আলমসাধু ছিনতাই করেছে। বেপরোয়া ছিনতাইকারী দল জনতার ধাওয়া খেয়ে ছিনতাইকৃত আলমসাধু ফেলে পালিয়েছে।

এলাকাবাসীসূত্রে জানা গেছে, আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়নের কর্চ্চাডাঙ্গা জোলপাড়ার আব্দুর রহিম ব্যাপারির ছেলে কাঁচামালব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন টমেটো নিয়ে একই পাড়ার আব্দুর রশিদের ছেলে আজগার আলীর আলমসাধু গাড়িতে গত মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে ডাকবাংলা বাজারে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে বেলতলা রেলগেটের অদূরে রাস্তার বাঁকে পৌঁছুলে ৭/৮ জনের মুখবাঁধা ছিনতাইকারী রাস্তায় কলাগাছ ফেলে আলমসাধু গাড়ির গতিরোধ করে। চালক ও কাঁচামালব্যবসায়ী বলেছেন, কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই ৭/৮ জনের মুখবাঁধা ছিনতাইকারীরা মারধর করে দুটি মোবাইলফোন ও নগদ ৫শ টাকা ছিনিয়ে নেয়। তারা দেশীয় ধারালো অস্ত্রের মুখে নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে  রশি দিয়ে হাত-পা ও মুখ বেঁধে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে টমেটো ভর্তি আলমসাধু গাড়ি ছিনিয়ে নিয়ে সরোজগঞ্জের দিকে রওনা দেয়। কিছুক্ষণ পর ক্ষেতে আলু তুলতে যাওয়া কৃষকদের নজরে পড়লে তারা অসহায় চালক ও ব্যবসায়ীকে বাঁধন খুলে মুক্ত করেন। উদ্ধারকৃত ব্যক্তিদের নিকট ঘটনার বর্ণনা শুনে কৃষকরা মোবাইলফোনে গড়াইটুপি দাসপাড়ার লোকজনকে জানালে তারা রাস্তায় প্রতিরোধ গড়ে তোলে। এ ঘটনা আঁচ করতে পেরে ছিনতাকারীরা অবস্থা বেগতিক বুঝে ছিনতাইকৃত আলমসাধু গাড়িটি রাস্তার ওপর ফেলে সটকে পড়ে।

উল্লেখ্য, একই স্থানে দীর্ঘদিন যাবত একটি গ্যাংগ্রুপ ছিনতাই সংঘটিত করে আসছে। সম্প্রতি গত সপ্তায় ছিনতাইকারী দল একই স্থানে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার সড়াবাড়িয়া গ্রামের মোহাম্মদ মল্লিকের ছেলে আবুল কাশেমের পাউয়ার টিলার ছিনতাই করে। বারবার ছিনতাই সংঘটিত হওয়ার ঘটনায় পথচারীর আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *